রবিবার ৫ জুলাই ২০২০ ২০শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ফসলের চাষাবাদ ও প্রক্রিয়াজাতকরণ বাড়াতে হবে-কৃষিমন্ত্রী

কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম ও উত্তরাঞ্চলের অনেক জেলাতে কাজু বাদাম, কফি প্রভৃতি চাষ সম্ভব। আন্তর্জাতিক বাজারে এগুলোর চাহিদা অনেক বেশি, দামও বেশি। সেজন্য এসব ফসলের চাষাবাদ ও প্রক্রিয়াজাতকরণ বাড়াতে হবে।

বৃহস্পতিবার সকালে নিজ সরকারি বাসভবন থেকে উপজেলা পর্যায়ে কৃষি কার্যক্রম জোরদারে উপজেলা কৃষি অফিসারদের অনুকূলে গাড়ি বিতরণ উপলক্ষে এক ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, চাষাবাদের জমি বাড়ানোর সুযোগ খুব একটা নেই, বরং জমি দিন দিন কমে যাচ্ছে। সেজন্য একই জমিতে বার বার ফসল উৎপাদন করতে হবে, ফসলের নিবিড়তা বাড়াতে হবে এবং ফসলে বৈচিত্র্য আনতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী কৃষিকে বাণিজ্যিকীকরণ ও যান্ত্রিকীকরণে অত্যন্ত গুরুত্ব দিচ্ছেন উল্লেখ করে কৃষিমন্ত্রী বলেন, কৃষিতে এ সরকারের এখন মূল লক্ষ্য হলো খোরপোশের কৃষিকে বাণিজ্যিকীকরণ ও লাভজনক করা।

এ সময় তিনি কৃষিকাজ করে কৃষকরা যেন লাভবান হতে পারে, নিজেদের জীবনে গুণগত পরিবর্তন আনতে পারে এবং ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে উন্নত-সমৃদ্ধ জীবন উপহার দিতে পারে, সে লক্ষ্যে সব কর্মকর্তা-কর্মচারীকে নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন- কৃষি মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. নাসিরুজ্জামান। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের মহাপরিচালক ড. মো. আবদুল মুঈদের সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য রাখেন- মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (সম্প্রসারণ) মো. হাসানুজ্জামান কল্লোল, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের পরিচালক মো শাহ আলম, প্রকল্প পরিচালক তাজুল ইসলাম পাটোয়ারি প্রমুখ। এ সময় মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, সংস্থা প্রধানসহ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email