সোমবার ১৪ অক্টোবর ২০১৯ ২৯শে আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ফাহাদ হত্যা মামলা দ্রুত নিষ্পত্তি করা হবে: আইনমন্ত্রী

আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যা মামলা দ্রুততম সময়ে নিষ্পত্তির সকল ব্যবস্থা করা হবে।

নোয়াখালীতে ৬০ কোটি ৯২ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিত ১০ তলা বিশিষ্ট চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ভবনের উদ্বোধনকালে বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) প্রধান অতিথির বক্তব্যে আইনমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, নৃশংস এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে যারাই জড়িত থাকুক না কেন তাদের পরিচয় যা-ই হোক না কেন, সকলকে বিচারের আওতায় আনা হবে। পাশাপাশি ন্যায় বিচারের মাধ্যমেই এ মামলার বিচারকার্য শেষ করা হবে।

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, মানুষ যাতে বিচারের জন্য পথে পথে না ঘুরে। তারা যেন ন্যায়বিচার পায়। আর এ ন্যায়বিচার যেন শুধু মুখের বুলি না হয়। পাশাপাশি ন্যায়বিচার যেন কাগজেও দৃশ্যমান হয় সে ব্যাপারে ব্যবস্থা করছে সরকার। তিনি বলেন, সরকার চায় মানুষ দ্রুত বিচার পাক এবং বিচার না হওয়ার কারণে ‘স্ট্রিট জাস্টিসের’ জন্ম না হোক।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আইনমন্ত্রী বলেন, আদালত প্রাঙ্গণে নিরাপত্তা জোরদার করতে দেশের সকল আদালতে সিসি ক্যামেরা স্থাপন করা হবে। পাশাপাশি সেগুলো নিয়মিত মনিটরিং করা হবে।

আইনমন্ত্রী বলেন, উচ্চ আদালতের একটি রায় অনুযায়ী ২০০৭ সালের ১ নভেম্বর থেকে দেশের নির্বাহী বিভাগ থেকে আলাদা হয়ে পথচলা শুরু করে বিচার বিভাগ। শুরুতেই আদালতগুলোর এজলাস কক্ষে অপ্রতুলতাসহ বিচারক সংকট দেখা দেয়। এতে বিচারক আইনজীবী ও বিচারপ্রার্থী জনগণ যেমন একদিকে ভোগান্তির শিকার হতে থাকেন, তেমনভাবে অন্যদিকে দিনের পর দিন বাড়তে থাকে  মামলার জট।

এমতাবস্থায় ২০০৯ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকার গঠন করেন এবং বিচার বিভাগের স্বাধীনতাসহ এর পৃথকীকরণকে সুদৃঢ় ও টেকসই করণে বাস্তবমুখী নানা পদক্ষেপ নেন। এরই ধারাবাহিকতায় প্রথমেই এজলাস সংকট দূর করতে শুরু হয় আদালত ভবন নির্মাণের কাজ। পাশাপাশি জোরদার করা হয় নতুন বিচারক নিয়োগের কার্যক্রম।

১০ তলা বিশিষ্ট চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ভবনের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন নোয়াখালীর জেলা ও দায়রা জজ সালেহ উদ্দিন আহমদ। এ সময় নোয়াখালী ৪ ও ৬ আসনের নির্বাচিত সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরী ও আয়েশা ফেরদাউসসহ জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত মহিলা আসনের সদস্য ফরিদা খানম, আইন সচিব মো. গোলাম সারওয়ার, যুগ্ম সচিব বিকাশ কুমার সাহা প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।