বুধবার ২১ অগাস্ট ২০১৯ ৬ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বিএনপিকে তো পাওয়া যায়নি-কৃষিমন্ত্রী

কৃষিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলির সদস্য ড. আবদুর রাজ্জাক বলেছেন, ‘‘বিএনপির আবাসিক নেতা রিজভী প্রতিদিন অভিযোগ করেন- আমরা বানভাসি মানুষের পাশে নাই। আমি চ্যালেঞ্জ দিয়ে বলতে পারি, আওয়ামী লীগের আমলে কোথাও কেউ না খেয়ে মরে নাই। সিডর, আইলাসহ নানা সঙ্কটে দুর্গত মানুষের পাশে ছিল আওয়ামী লীগ। ভবিষ্যতেও থাকবে। কিন্তু বিএনপিকে তো পাওয়া যায়নি।

বুধবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ের আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের বিশেষবর্ধিত সভায় তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, বিএনপির অফিস থেকে দেয়া বিবৃতি মিথ্যাচার। যারা গুজব ছড়াচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে আবদুর রাজ্জাক বলেছেন, গুজব সৃষ্টিকারীরা সফল হবে না।

বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে আবদুর রাজ্জাক বলেন, সারাদেশে বন্যা হয়েছে। বানভাসি ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে রয়েছে আওয়ামী লীগ। আমরা টিমভিত্তিক কাজ করছি, মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছি। তবে আমরা আহামরি কিছু করতে পারছি না। কিন্তু বানভাসি মানুষের পাশে আমরা আছি। 

আওয়ামী লীগের বিদ্রোহ প্রার্থী প্রসঙ্গে ড. রাজ্জাক বলেন, বিদ্রোহী প্রার্থীকে নিয়ে তৃণমূলের ভুল বুঝাবুঝি সৃষ্টি হয়েছে। ছোটোখাটো কোন্দল ও দ্বন্দ্ব তৈরি হয়েছে। বিদ্রোহের সতর্ক করাসহ তৃণমূলের নানা সমস্যা সমাধান করে সুসংগঠিত করতে নেত্রী টিম করে দিয়েছেন। আমরা কাজ করছি, এ সভাও তারই অংশ হিসেবে আয়োজন করা হয়েছে। এটি আমাদের প্রথম সভা।

তিনি বলেন, সামনে ঢাকা সিটির নির্বাচন। এ নির্বাচনেই প্রমাণ হবে মূলত মহানগর আওয়ামী লীগ কতটা সুসংগঠিত ও শক্তিশালী। এ সময় তিনি বলেন, মহানগরে ওয়ার্ড ও থানার কমিটি নিয়ে অনেকের ক্ষোভ আছে। ভুল বুঝাবুঝি সৃষ্টি হয়েছে।  সেগুলো নিয়েও আলোচনায় আসতে পারে। আপনারা বলবেন। তবে কাউকে আঘাত করা যাবে না। ভুলত্রুটি থাকতেই পারে।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসনাতের সভাপতিত্বে বর্ধিতসভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন-আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, সাবেক খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন, দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদসহ আর‌ও অনেকে।