শুক্রবার ২০ জুলাই ২০১৮ ৫ই শ্রাবণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

বিরলে আমের ফলন ভালো হলেও তুলনামূলক ভাবে দাম কম হওয়ায় হতাশ হয়ে পড়েছে এ অঞ্চলের আম চাষিরা

সুবল রায়, বিরল (দিনাজপুর) প্রতিনিধি ঃদিনাজপুরের বিরলে আমের দাম তুলনামূলক ভাবে কম হওয়ায় হতাশ হয়ে পড়েছে এ অঞ্চলের আম চাষিরা। গত বছর লাভের মুখ দেখলেও এ বছর লোকসান গুনতে হবে বলে আশঙ্কা করছেন তারা। চাষীদের দাবী এ অঞ্চলে আম সংরক্ষনের জন্য হিমাগার/কোল্ডস্টোরেজ স্থাপন করা হলে ন্যায্য দাম পাবেন। অন্যথায় আগামীতে আম চাষের আগ্রহ হারিয়ে ফেলবেন।
আমের রাজ্য হিসেবে খ্যাত উত্তরের জেলা দিনাজপুর। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় এ বছর আমের লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে গেছে। এ বছর তীব্র তাপদাহ ও গরম আবহাওয়ার কারণে সময়ের আগে গাছেই আম পাকতে শুরু করেছে। গত মৌসুমের মতো আমে ফরমালিনের ব্যবহার ঠেকাতে স্থানীয় প্রশাসন থেকে কঠোর নজাদারি রেখেছে। ফলে সময়ের আগেই গাছে আম পাকতে শুরু করে। আমের ফলন ভাল হওয়ায় তুলনা মুলক বাজারে আম বেশি থাকায় আমের দাম পড়ে গেছে। এখন আম চাষি ও ব্যবসায়ীদের লাভের পরিবর্তে লোকসান গুনতে হচ্ছে।
ব্যবসায়ী ও আড়তদাররা বলেন, চাষীদের দাবী এ অঞ্চলে আম সংরক্ষনের জন্য হিমাগার/কোল্ডস্টোরেজ স্থাপন করা এবং বিদেশে রপ্তানি করা হলে ন্যায্য দাম পাবেন। অন্যথায় আগামীতে আম চাষের আগ্রহ হারিয়ে ফেলবেন তারা।
উপজেলা কৃষি অফিসার মোঃ মাহবুবার রহমান জানান, এবারে বিরল উপজেলায় ৫০০ হেক্টর জমিতে আমের চাষ করা হয়েছে। এবারে প্রায় শতাধীক আম বাগান রয়েছে। নতুন কোন আমের জাত নাই। বাড়ী আম-ফোর, মিশ্রি ভোগ, সুর্যাপুরী, আ¤্রপালী, হাড়ী ভাঙ্গা ও গুটি আমের বাগান বেশী। তবে চাহিদার তুলনায় ফলন বেশী।
বিরলে একটি আম সংরক্ষনাগার থাকলে হয়তো ব্যবসায়ীরা সংরক্ষন করতে পারতো। তাই না থাকার কারণে সঠিক সময়ে আম গুলো বাজার জাত করতে না পারায় আমের দাম পাচ্ছেনা ব্যবসায়ীরা। সরকার যেন আগামী বছরে এই অঞ্চলে আমের সংরক্ষনাগার তৈরী করে এমন প্রত্যাশা এলাকার বাগান চাষীসহ ব্যবসায়ীদের।