মঙ্গলবার ২৬ মে ২০২০ ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বিরলে বখাটে যুবকের ছুরিকাঘাতে এক নারীর মৃত্যু

সুবল রায়, বিরল (দিনাজপুর) প্রতিনিধি ॥ দিনাজপুরের বিরলে কু-প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় এক বখাটে যুবকের ছুরিকাঘাতে সাবিনা নামের এক স্বামী পরিত্যাক্তা নারীর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয়েছে। ছুরিকাঘাতের পর থেকেই ওই বখাটে যুবক পলাতক রয়েছে। লাশ ময়না তদন্ত শেষে পরিবারের নিকট হস্তান্তর করেছে পুলিশ।

নিহত সাবিনার মা শাহিনা বেগম জানান, উপজেলার ৯ নং মঙ্গলপুর ইউপি’র মোস্তফাবাদ (পাঠানপাড়া) গ্রামের রাজা’র পুত্র বখাটে যুবক বদিউজ্জামান (২৫) পার্শ্ববর্তী সফিকুল ওরফে পচুর স্বামী পরিত্যাক্তা কন্যা সাবিনা বেগম (২২) কে প্রায় সময় কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। এতে রাজি হচ্ছিল না সাবিনা। গত ১৫ অক্টোবর বৃহষ্পতিবার রাত আনুমানিক সাড়ে ৮ টা দিকে বখাটে বদিউজ্জামান কৌশলে সাবিনাকে মোবাইল ফোনে গ্রামীণ ব্যাংক মঙ্গলপুর শাখা কার্যালয় চত্ত্বরে ডেকে নিয়ে আসে। এসময় দু’জনের কথাবার্তার এক পর্যায় বদিউজ্জমান উত্তেজিত হয়ে সাবিনাকে মার ধর করতে থাকে এবং এক পর্যায়ে সাবিনার পেটে ছুরি মেরে দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে পালিয়ে যায়। ছুরিকাহত অবস্থায় সাবিনা কোন মতে মঙ্গলপুর মন্ত্রী বাজারে এসে পৌঁছলে তার এ অবস্থা দেখে স্থানীয় লোকজন তাঁর পিতাকে সংবাদ দেয়। পরে তাঁকে সঙ্গে সঙ্গে মঙ্গলপুর বাজারস্থ এক ফার্মেসীতে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে দ্রুত বিরল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এনে ভর্তি করা হয়। অবস্থা শংকাজনক হওয়ায় পরদিন শুক্রবার সাবিনাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার রাত ১২ টায় সাবিনা মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়ে।

গতকাল বুধবার দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে সাবিনার লাশের ময়না তদন্ত শেষে তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। বিরল থানার অফিসার ইনচার্জ এ টি এম গোলাম রসুল জানান, অত্র মঙ্গলপুর ইউপি চেয়ারম্যান সেরাজুল ইসলাম বলেন, সাবিনার পরিবার এ বিষয়ে বিরল থানায় একটি হত্যামামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। মামলা হলে দোষীর বিরুদ্ধে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email