বুধবার ২১ অগাস্ট ২০১৯ ৬ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বীরগঞ্জের সিটি ক্লিনিকে শিশু’র মৃত্যু, সরকারি ঔষধ রাখার অপরাধে হাসপাতালের নার্স ও ক্লিনিক মালিক আটক

রদীপ রায় জিতু, দিনাজপুর প্রতিনিধি- দিনাজপুরের বীরগঞ্জ পৌর শহরের নুর ল্যাব এন্ড সিটি (ক্লিনিক) নার্সিং হোম এ ডাক্তার বিহীন আয়া দিয়ে বাচ্চা প্রসবকালে শিশুর মৃত্যু হয়। ঐ ঘটনা তদন্তকালে ক্লিনিক মালিক ও সরকারি হাসপাতালের নার্সের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে সরকারি ঔষধ পাওয়ার অপরাধে হাসপাতালের নার্স ও ক্লিনিক মালিক আটক করে ভ্রাম্যমান আদালত।১১ আগস্ট রবিবার ভোরে পৌর শহরের মাকড়াই গ্রামের রাজা মিয়ার স্ত্রী ফরিদা বেগমের প্রসব ব্যথা উঠলে নুর ল্যাব এন্ড সিটি (ক্লিনিক) নার্সিং হোম এ নিয়ে গিয়ে ভর্তি করালে আয়া দিয়ে প্রসবকালে শিশুর মৃত্যু ঘটে। এ সংবাদ ছড়িয়ে পরলে বীরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ শাকিলা পারভিন এবং ওসি তদন্ত বিশ্বনাথ দাস গুপ্ত ক্লিনিকে উপস্থিত হলে সরকারি হাসপাতালের ঔষধ ব্যবহারের ঘটনাটি তাদের নজরে আসলে বীরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্যট মোঃ ইয়ামিন হোসেনকে সংবাদ দেয়। নির্বাহী অফিসারের নেতৃত্বে পুলিশের ১টি টিম ক্লিনিকে অভিযান চালিয়ে সরকারি হাসপাতালের ঔষধ পায়। তারই সূত্র ধরে ক্লিনিক মালিক পৌর শহরের ফিসারী মোড় এলাকার বীর মুক্তিযোদ্ধা হাফিজ ভেন্ডার এর পুত্র ক্লিনিক মালিক নুর আলম এর বাড়িতে অভিযান চালিয়েও বেশ কিছু ঔষধ পাওয় যায়। এসময় ভ্রাম্যমান আদলতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্যট ক্লিনিক মালিক নুর আলম ও তার স্ত্রী বীরগঞ্জ সরকারি হাসপাতালের নার্স ফাহিমা আক্তারকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।ঘটনাস্থলে ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্যট মোঃ ইয়ামিন হোসেন জানায়, আটক কৃতদের বিরুদ্ধে সরকারি ঔষধ রাখার অপরাধে ও ক্লিনিকে শিশু মৃত্যুর ঘটনায় পৃথক মামলা করা হবে। এসময় ক্লিনিকটি সিলগালা করে ভ্রাম্যমান আদালত।