বুধবার ১৪ নভেম্বর ২০১৮ ৩০শে কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

বীরগঞ্জে আহত নৈশপ্রহরী শহীদ মারা গেছেন।

মোঃ আব্দুর রাজ্জাক ॥ দিনাজপুরের বীরগঞ্জে গত ৯আগষ্ট পৌর শহরের জেলখানা মোড়ের মৃত আবুল কাশেমের ছেলে সুরুজ আলী (৪০) নামে এক নৈশ্য প্রহরীকে জবাই করে হত্যা ও অপর নৈশ্যপ্রহরী একই এলাকার মৃত মধু মিয়ার ছেলে মোঃ শহীদ (৩৮) এবং তার ৩বছরের শিশু সন্তান মোঃ একরামুলকে ছুরিকাঘাতে আহত করে একই এলাকার সন্ত্রাসী তারা মিয়ার ছেলে মোঃ রবিউল ইসলাম (৩২)। ঘটনায় পর রবিউল ইসলামকে পিটিয়ে হত্যার পর আগুন ধরিয়ে দেয় এবং দিনাজপুর-ঠাকুরগাঁও মহাসড়ক ৫ ঘন্টা অবরোধ করে রাখে বিক্ষুদ্ধ জনতা ।

এ ঘটনায় আহত নৈশ্য প্রহরী মোঃ শহীদ বৃহস্পতিবার (১৬ আগষ্ট) সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসাপালে মারা যায়। তবে তার ছেলে মোঃ একরামুল সুস্থ্য রয়েছে বলে জানিয়েছেন বীরগঞ্জ পৌরসভার কাউন্সিলর মোঃ আব্দুল্ল্যা আল হাবিব মামুন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বীরগঞ্জ থানার এসআই মোঃ দুলাল হোসেন জানান, বৃহস্পতিবার বিকেল নিহতেকে স্থানীয় কবরস্থানে দাফন করা হবে। এবং পরিবারের সাথে আলোচনা করে পরবর্তী আইনী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এলাকার পরস্থিতি শান্ত এবং নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বলে জানিয়ে বীরগঞ্জ থানার ওসি সাকিলা পারভিন বলেন, এ ধরণের ঘটনা যেন আর না ঘটতে পারে সে ব্যাপারে পুলিশ তৎপর রয়েছে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে কেউ যেন হয়রানী না হয় এবং কেউ যেন মিথ্যে অপপ্রচার চালাতে না পারে সেক্ষেত্রে সবাইকে সজাগ থাকার অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।

প্রসঙ্গত, গত ৯আগষ্ট বৃহস্পতিবার ভোরে বীরগঞ্জ শালবাগার মোড় নামক স্থানে নৈশ্যপ্রহরীর দায়িত্ব পালনকালে সুরুজ আলীকে জবাই করে হত্যা হত্যার পরপরই বীরগঞ্জ হাটখোলা মোড়ে একই দায়িত্ব পালনকালে মোঃ শহীদ এবং তার মোঃ একরামুল ছুরিকাঘাত করে জখম করে পালিয়ে সন্ত্রাসী রবিউল ইসলাম। ঘটনার পর ভোর ৫ টা থেকে তারা দিনাজপুর-ঠাকুরগাঁও মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে। বিক্ষুব্ধ লোকজন জেল খানা মোড় এলাকায় রবিউল ইসলামের বাড়ীতে রক্তমাখা কাপড় দেখতে পেয়ে তাকে খুঁজতে থাকে। সকাল ৮টায় তাকে কাহারোল উপজেলার ১৩ মাইল গড়েয়া নামক স্থানে খুজে পায়। বিক্ষুব্ধ লোকজন তাকে ধরে নিয়ে বীরগঞ্জ শালবাগান মোড়ে এনে পিটিয়ে হত্যার পর  আগুন ধরিয়ে দেয়।   পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে ও সকাল ১০ টা থেকে যানচলাচল শুরু হয়। এ ঘটনায় বীরগঞ্জ থানায় দুইটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।

রবিউল ইসলাম এলাকায় মাদকসেবী এবং সন্ত্রাসী হিসেবে পরিচিত।