বৃহস্পতিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ৫ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

বীরগঞ্জে টাকা চুরির অপরাধে চোরকে পিটিয়ে হত্যায় মামলা দায়ের

দিনাজপুর প্রতিনিধি॥ গত শুক্রবার দিনাজপুরের বীরগঞ্জে টাকা চুরির অপরাধে শাহাবুদ্দিন বুদ্ধির(৩৮)নামে এক যুবককে পিটিয়ে হত্যা করার ঘটনায় বীরগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে পরুষ শূন্য হয়ে পড়েছে পুরো গ্রাম।

নিহত যুবক শাহাবুদ্দিন বুদ্ধি বীরগঞ্জ উপজেলার পশ্চিম ভোগডমা গুচ্ছ গ্রামের মৃত ফজর আলীর ছেলে।

শুক্রবার রাতে প্রতিবেশি আলীম উদ্দীন ও তার ছেলে চাঁন মিয়াসহ ২৯জনের নাম উল্লেখ আরও অজ্ঞাত ৩৫-৪০জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। পুলিশ অভিযান চালিয়ে রাতেই ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে একই গ্রামের আবু বক্কর সিদ্দিকের ছেলে রফিকুল ইসলাম (৩৪)কে গ্রেফতার করেছে। শনিবার সকালে দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ মর্গে লাশের ময়না তদন্ত শেষে বিকেলে নিজগ্রামে দাফন করা হয়েছে।

নিহতের মা মালেকা বেওয়া বাদী হয়ে এই হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

এ ব্যাপরে জানতে চাইলে মেম্বার নুরনবী জানান, মামলা দায়েরের পর থেকে গ্রেফতার এড়াতে পুরো গ্রাম পুরুষ শূন্য হয়ে পড়েছে।

মামলার তদন্তকারী অফিসার বীরগঞ্জ থানার এসআই প্রাণকৃষ্ণ দেব নাথ মামলা বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে এই মামলায় কোন সাধারণ মানুষের আতংক হওয়ার কোন কারণ নেই। অপরাধের সাথে যারা জড়িত তদন্ত সাক্ষেপে তাদের গ্রেফতার করা হবেনা।

জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে প্রতিবেশী আলীম উদ্দীনের বাড়ী থেকে ২ লক্ষ ১৯ হ্জ্র টাকা চুরি হয়ে যায়। এই ঘটনায় পেশাদার চোর মোঃ শাহাবুদ্দিন বুদ্ধি কে শুক্রবার ভোর বেলা আটক করা হয়। এরপর  তাকে মারধর করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে সে চুরির কথা স্বীকার করে এবং টাকা শাহাবুদ্দিন বুদ্ধির শ্বশুড় বাড়ী এলাকার জৈনক চোরের কাছে আছে বলে জানায় । এ সময় তার স্ত্রী মোছাঃ রোজিনা (৩০) কে নিয়ে এসে মারধরে করে তাৎক্ষণিক টাকা ফেরত চায়। বিষয়টি জানতে পেরে পাল্টাপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য নুরনবী পুলিশকে সংবাদ দেয়। সংবাদ পেয়ে পুলিশ গুরুতর আহত অবস্থায় মোঃ শাহাবুদ্দিন বুদ্ধি ও স্ত্রী মোছাঃ রোজিনাকে উদ্ধার করে বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স এ নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক মোঃ শাহাবুদ্দিন বুদ্ধিকে মৃত ঘোষণা করে।