শনিবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ৭ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

বীরগঞ্জে পাল্টাপুর ইউনিয়ন পরিষদের উপ-নির্বাচনে ৬প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র দাখিল

মোঃ আব্দুর রাজ্জাক॥ দিনাজপুরের বীরগঞ্জে পাল্টাপুর ইউনিয়ন পরিষদের উপ-নির্বাচনে আওয়ামীলীগ-বিএনপি মনোনিত প্রার্থীর পক্ষে মনোনয়ন পত্র দাখিল করা হয়েছে। এ দিকে আওয়ামীলীগের দুই বিদ্রোহী প্রার্থী স্বতন্ত্র হিসেবে মনোনয়ন পত্র দাখিল করেছেন।

আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থী মোঃ তোফাজ্জল হোসেন দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে বিকেল ৩টায় রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাচন অফিসার মোঃ নুর-ই-আলম এর নিকট মনোনয়ন পত্র দাখিল করেন। এর আগে বিএনপি মনোনিত প্রার্থী মোঃ তহিদুল ইসলাম এর পক্ষে উপজেলা বিএনপি এবং পৌর বিএনপির নেতাকর্মীরা মনোনয়ন পত্র দাখিল করেন। এ ছাড়াও আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী সুরেন্দ্র নাথ রায় কোকিল, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা নুরে আলম সিদ্দিকী রয়েল এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ জহরুল হক, মোঃ জুলফিকার শামসুজ্জোহ মনোনয়ন পত্র দাখিল করেন।

নির্বাচন অফিস সুত্রে জানা গেছে, পাল্টাপুর ইউনিয়নে মোট ভোটার ২০হাজার ৪শত ৪৮জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১০হাজার ৩শত ৪৬জন এবং মহিলা ভোটার ১০হাজার ১শত ২জন।

উপজেলা নির্বাচন অফিসার মোঃ নুর-ই-আলম জানান, উপ-নির্বাচনে বিএনপি মনোনিত মোঃ তছলিমুল আলম ধানের শীষ প্রতিক নিয়ে ৮হাজার ৬শত ৪৪ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। তিনি পদত্যাগ করলে গত ১৯জুন চেয়ারম্যানের পদ শুন্য ঘোষণা করা হয়। গত ১সেপ্টম্বর পাল্টাপুর ইউনিয়ন পরিষদের উপনির্বাচনের তফশিল জারি করা হয়। জারিকৃত তফশিল অনুযায়ী  ৯সেপ্টম্বর মনোনয়ন পত্র দাখিল। ১০সেপ্টম্বর যাচাই-বাচাই। ১৭সেপ্টম্বর প্রার্থীতা প্রত্যারের শেষ দিন এবং ৩অক্টোবর ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে ১১টি ভোট কেন্দ্রের ৬০টি বুথে ভোট গ্রহণ করা হবে।

এদিকে গত ৪সেপ্টম্বর আসন্ন পাল্টাপুর ইউয়িন পরিষদ উপ-নির্বাচনে বিএনপির অংশগ্রহণ বিষয়ক প্রস্তুতি সভা থেকে ৫কর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। এ সময় পুলিশী হামলায় ৭কর্মী আহত হয়েছে বলে দাবী করেছেন উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মোঃ জাকির হোসেন ধলু। নাশকতার প্রস্তুতির অভিযোগ এনে পুলিশ বাদী হয়ে ৫জনের নাম উল্লেখ করে ১৪০হতে ১৫০জনের বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা দায়ের করেন। ঘটনার পর থেকে পাল্টাপুর ইউনিয়নে বিএনপির নেতাকর্মী গা ঢাকা দিয়েছে। গ্রেফতার আতংকে মনোনয়ন পত্র জমা দিতে আসেনি বিএনপি মনোনিত প্রার্থী মোঃ তহিদুল ইসলাম। তার পক্ষে উপজেলার দলীয় নেতাকর্মীরা মনোনয়ন পত্র জমা দেন।

উল্লেখ্য, পাল্টাপুর ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনের পর শপথ নিয়ে ক্ষমতা হস্তান্তরে আগেই মৃত্যু বরণ করেন নির্বাচিত চেয়ারম্যান মোঃ তাবার হোসেন। পরে উপ-নির্বাচনে মোঃ তাবার হোসেনের ছোট ভাই আমেরিকা প্রবাসী মোঃ তছলিমুল আলম বিএনপি প্রার্থী হিসেবে ধানের শীষ প্রতিক নিয়ে ৮হাজার ৬শত ৪৪ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। তার নিকটত প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন আওয়ামীলীগ মনোনিত মোঃ তোফাজ্জল হোসেন। তিনি ভোট পেয়েছিলেন ৩হাজার ৫শত ৬৫ভোট। আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী সুরেন্দ্র নাথ রায় কোকিল পেয়েছিলেন ৩হাজার ১শত ১৮ভোট। মোঃ তছলিমুল আলম পদত্যাগ করলে ১৯জুন চেয়ারম্যানের পদ শুন্য ঘোষণা করা হয়।