সোমবার ৬ এপ্রিল ২০২০ ২৩শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বীরগঞ্জে বাস চাপায় শ্বাশুড়ী-পুত্রবধু নিহত

মোঃ আব্দুর রাজ্জাক ॥ দীর্ঘদিন ধরে পায়ের সমস্যায় ভূগছিলেন দিনাজপুরের বীরগঞ্জ পৌর শহরের মৃত বজলুর রশিদের স্ত্রী মোছাঃ আলিমন বেওয়া (৭০)। সমস্যা একটু বেশী হওয়ায় পুত্রবধু মোছাঃ রেহেনা বেগম(৩২)কে নিয়ে আজ বুধবার দুপুরে ব্যাটারী চালিত চার্জার ভ্যান যোগে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রওয়ানা হয় চিকিৎসা সেবা নিতে। পথে বীরগঞ্জ পৌরসভা কার্যালয়ের সামনে ফিসারীর মোড় নামকস্থানে দিনাজপুর থেকে ছেড়ে আসা পঞ্চগড়গামী একটি অজ্ঞাত যাত্রীবাহী বাস চার্জার ভ্যানটিকে চাপায় দিয়ে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই মোছাঃ আলিমন বেওয়া (৭০) মারা যায়। হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় আলিমন বেওয়ার পুত্রবধু মোছাঃ রেহেনা বেগম (৩২) মারা যায়। ঘটনায় ভ্যান চালক লক্ষী কান্ত রায় (৪৫) এবং অপর যাত্রী মোছাঃ জাহেদা বেগম (৪৫) আহত অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছেন।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে একজন নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করে আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. সাইফুল ইসলাম জানান, এই মুহুর্তে আহতরা আশংকা মুক্ত।

নিহত মোছাঃ আলিমন বেওয়া পৌর শহরের মৃত বজলুর রশিদের স্ত্রী এবং মোছাঃ রেহেনা বেগম একই এলাকার মোঃ আফজাল হোসেনের স্ত্রী। আহত ভ্যান চালক লক্ষী রায় সুজালপুর ইউনিয়নের কোমরপুর গ্রামের মৃত রাজেন রায়ের ছেলে এবং মোছা জাহেদা বেগম পৌর শহরের সুজালপুর  গ্রামের মোঃ সুকুর আলীর স্ত্রী।

বুধবার দুপুর ১২টায় বীরগঞ্জ পৌর শহরের সামনে ফিসারীর মোড় নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

বীরগঞ্জ পৌর মেয়র মোঃ মোশারফ হোসেন বাবুল প্রত্যক্ষদর্শিদের বরাত দিয়ে জানান, যাত্রীবাহী বাসটি দ্রুত গতিতে ছিল। ঘটনাস্থলে মোড় নেওয়ার সময় চার্জার ভ্যানটি উপর তুলে দিয়ে পালিয়ে যায়। এতে ভ্যানটি দুমড়ে-মচড়ে যায়। ঘটনাস্থলে একজন মারা যান। আহতদের উদ্ধার করে তাৎক্ষণিক ভাবে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

বীরগঞ্জ থানার এসআই আলন চন্দ্র রায় দুই জন নিহতের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, নিহতের পরিবারে পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত কোন লিখিত ভাবে অভিযোগ পাওয়া যায় নি এবং ঘাতক বাসটি পালিয়ে যাওয়ার কারণে কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email