বুধবার ১২ অগাস্ট ২০২০ ২৮শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বীরগঞ্জে বিআরটিসি বাস চাপায় চার্জার ভ্যান চালকসহ নিহত-৭

মো. আব্দুর রাজ্জাক॥ দিনাজপুর-পঞ্চগড় মহাসড়কের বীরগঞ্জে পচিঁশ মাইল নামক স্থানে বিআরটিসি-চার্জার ভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে একই পরিবারের মা-মেয়েসহ ৭জনের মৃত্যু হয়েছে। ঘটনার পর রাস্তায় ব্যারিকেড দেয় স্থানীয়রা।

রাস্তা কিছুক্ষন বন্ধ থাকার পর পুলিশের হস্তক্ষেপে রাস্তায় যান চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে বলে জানায় পুলিশ।

নিহতরা হলেন, বীরগঞ্জ উপজেলার ভোগনগর ইউনিয়নের ভাবকির ইদ্রিস আলীর স্ত্রী নাসরিন বেগম (৪৫), ইদ্রিস আলীর মেয়ে রুপা (৮), উপজেলার সুজালপুর ইউনিয়নের মুড়িয়ালা গ্রামের আতিয়ার রহমানের স্ত্রী নার্গিস (৩২), কাহারোল উপজেলার দেবীপুর গ্রামের মৃত আব্দুল গনির ছেলে আবুল হোসেন(৬০), আবুল হোসেনের স্ত্রী আসমা খাতুন (৫০), একই এলাকার সোহানের মেয়ে লামিয়া (৮), এবং অজ্ঞাত চার্জার ভ্যান চালক (৪০)।

সোমবার দুপুর সোয়া ২টার দিকে দিনাজপুর-পঞ্চগড় মহাসড়কের বীরগঞ্জ উপজেলার সাতোর ইউনিয়নের ২৫ মাইল নামক এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা সকলেই চার্জার ভ্যানের যাত্রী ও চালক ছিলেন। 

স্থানীয়রা ও পুলিশ জানায়, সোমবার দুপুরে চার্জার ভ্যান রিজার্ভ নিয়ে আসমা খাতুন তার স্বামীর সাথে বীরগঞ্জের মোহাম্মদপুর ইউপির রনগাঁও গ্রামে অসুস্থ বাবা আখিম উদ্দিনকে দেখতে রওনা দেয়। পথিমধ্যে তার বোন বীরগঞ্জের নাসরিন বেগম এবং এরপর আরেক বোন নার্গিসকে সাথে নিয়ে বাবার বাড়ীর উদ্যেশে চার্জার ভ্যান নিয়ে যায়। যাওয়ার প্রাক্কালে দিনাজপুর-পঞ্চগড় মহাসড়কের বীরগঞ্জ উপজেলার ২৫ মাইল নামক এলাকায় পঞ্চগড় থেকে রংপুরমুখী বিআরটিসি বাস চাপা দিলে চার্জারভ্যান ধুমড়ে-মুচরে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই চারজন আসমা, লামিয়া, নাসরিন ও রুপা মারা যায়। আহতদের উদ্ধারকৃত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সেখানে অজ্ঞাত চার্জার ভ্যান চালক মারা যায়। বাকী আহত দুজনের অবস্থা আশংকা জনক হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে নেওয়ার পথে মোছা. নার্গিস বেগম এবং আবুল হোসেন মারা যায়।  এসময় বিআরটিসি বাসটি ভ্যানকে চাপা দিয়ে রাস্তার পাশের এক গাছে ধাক্কা লাগে। এতে বাস যাত্রীরা কয়েকজন আহত হয়।

বীরগঞ্জ থানার ওসি আব্দুল মতিন প্রধান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, সোমবার দুপুর সোয়া ২টার দিকে দিনাজপুর-পঞ্চগড় মহাসড়কের বীরগঞ্জ উপজেলার ২৫মাইল নামক এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। চার্জার ভ্যানে থাকা বিআরটিসি বাসের চাপায় চার্জার ভ্যান চালকসহ সাতজনই নিহত হন। এর মধ্যে মা-মেয়েসহ একই পরিবারের ৬ নিহত হয়। তবে নিহত ভ্যান চালকের পরিচয় এখনো মেলেনি বলে তিনি জানান।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email