সোমবার ২২ অক্টোবর ২০১৮ ৭ই কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

বীরগঞ্জে রিক্স-ভ্যান চালকের ছেলে মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় সম্মিলিত মেধা তালিকায় ৩য়স্থান অধিকার করায় সংবর্ধনা

মোঃ আবেদ আলী, বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি ॥ বীরগঞ্জে রিক্স-ভ্যান চালকের ছেলে সজিব চন্দ্র রায় মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় সম্মিলিত মেধা তালিকায় ৩য়স্থান অধিকার করায় সংবর্ধনা ও আর্থিক সহযোগিতা দেওয়া হয়েছে।

উপজেলার মরিচা ইউনিয়নের কাটগড় রাজাপুকুর গ্রামের রিক্সা-ভ্যান চালক বাবা মনোধর চন্দ্র রায় ও কৃষি শ্রমিক চারু বালা রায়ের একমাত্র ছেলে সজিব চন্দ্র রায় উপজেলা নির্বাহী অফিসারের চেম্বারে সজিব চন্দ্র রায়কে এবারের (২০১৮ইং) মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় সম্মিলিত মেধা তালিকায় ৩য়স্থান অধিকার করেছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ তোফাজ্জল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান ও সাবেক জাতীয় সংসদ সদস্য মোঃ আমিনুল ইসলাম, বিশেষ অতিথি ছিলেন পৌর মেয়র আলহাজ্ব মাওঃ মোহাম্মদ হানিফ, উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ এরশাদুল হক, মরিচা ইউপি চেয়ারম্যান আতাহারুল ইলাম চৌধুরী হেলাল ও মিডিয়া কর্মিরা।

অসহায় দরিদ্র পরিবারের সন্তান সজিব চন্দ্র রায়ের অসাধারন কৃতিত্ব কাটগড় রাজাপুকুর গ্রাম, মরিচা ইউনিয়ন, বীরগঞ্জ উপজেলাবাসী তথা দিনাজপুর জেলাকে গর্বিত করেছে। বিষয়টি সংবাদ মাধ্যম দেশ ও জাতীর নজরে আনলে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে কৃতি ছাত্র সজিব চন্দ্র রায় ও তার বাবা মনোধর চন্দ্র রায়কে ফুলেল সংবর্ধনা দেওয়া হয় একই সাথে ভর্তির সমুদয় ব্যয় ও ঢাকায় যাতায়াতের অর্থ তার হাতে তুলে দেওয়া হয়।

এছাড়াও উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে আরো বিশ হাজার প্রদান করার সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়েছে। মেধাবী ছাত্র সজিব চন্দ্র রায় বাবা মনোধর চন্দ্র রায়-মা কৃষি শ্রমিক চারম্ন বালা রায় সাংবাদিক, উপজেলা চেয়ারম্যান ও ইউপি চেয়ারম্যানদের কৃতজ্ঞতা জানান।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ তোফাজ্জল হোসেন জানান, “জমি আছে ঘর নাই তার নিজ জমিতে গৃহ নির্মাণ” প্রকল্পের আওতায় কৃতি শিক্ষার্থী সজীবের পরিবারকে একটি ঘর নির্মাণ করার প্রস্তাব ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে।

সজিব চন্দ্র রায়ের মেডিকেল পড়াশুনার খরচ চালিয়ে যাওয়ার জন্য সমাজের বৃত্তবান ও শুধী সমাজের কাছে আর্থিক সহযোগিতা কামনা করেছেন দরিদ্র বাবা-মনোধর চন্দ্র রায় ও কৃষি শ্রমিক মা-চারু বালা রায়।