মঙ্গলবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২০ ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বীরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার এর নির্দেশে নদী থেকে অবৈধ ভাবে বালু ও পাথর উত্তোলনের মালামাল জব্দ

বীরগঞ্জ, দিনাজপুর থেকে বিকাশ ঘোষ ॥ বীরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার এর নির্দেশনায় ২৪ আগষ্ট শনিবার বিকেলে বীরগঞ্জ এলাকায় ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধভাবে বালু ও পাথর উত্তোলনের মালামাল জব্দ করেছেন ২ নং পলাশবাড়ী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান । ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায় উপজেলার পলাশবাড়ী ইউনিয়নের হীরামনি এলাকা মতৃ বাচ্চু মিয়ার ছেলে মো:দুলাল হোসেন অবৈধভাবে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু ও পাথর উত্তোলন করেন। যার ফলে ঝাড়বাড়ী থেকে গড়েয়া হাইওয়ে রস্তার ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশংকা রয়েছে, যার কারনে হাজার হাজার মানুষ ভোগান্তির শিকার হতে পারে এবং একটি গোরস্থান দখল করে বালুর রাখার জায়গা করায় এলাকাবাসী অভিযোগ করে জানান, দুলাল হোসেন তার ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়ে ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধভাবে নদী থেকে বালু ও পাথর উত্তোলন করে আসছেন এবং গোরস্থান দখল করে বালু রাখার জায়গায় বানিয়েছেন। এ বিষয়ে এলাকাবাসী বীরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো.ইয়ামিন হোসেন কে মুঠোফোনে অবগত করলে তিনি ২নং পলাশবাড়ী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো: জুয়েলকে ড্রেজার মেশিন সহ সকল মালামাল জব্দ করার নির্দেশ দিলে চেয়ারম্যান তৎক্ষনাৎ চার জন গ্রাম পুলিশ পাঠিয়ে একটি পাথর বহনকারী লছিমন, ড্রেজার মেশিন সহ সকল মালামাল জব্দ করে ইউনিয়ন পরিষদের নিয়ে আসেন। স্থানীয় শরিফুল ইসলাম নামে একজন অভিযোগ করে বলেন, বালু পাথর উত্তোলনের স্থানের পাশ দিয়ে ভুল¬ী নদীর পূর্ব এলাকার ছাত্র- ছাত্রীরা স্কুল যাওয়া আসা করে, স্কুলগামী ছাত্র ছাত্রীরা বালু পাথর উত্তোলনের খালে পরে গিয়ে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। দ্রুত বালু ও পাথর উত্তোলন বন্ধ করায় এলাকাবাসী উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ২নং পলাশবাড়ী ইউনিয়নের চেয়ারম্যানকে ধন্যবাদ জানান।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email