রবিবার ২৬ জানুয়ারী ২০২০ ১৩ই মাঘ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বোদায় ঘুষ-দুর্নীতির বিরোধী ক্যাম্পেইন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সাইফুল ইসলাম শান্তি

মোঃ লিহাজ উদ্দীন মানিক, বোদা (পঞ্চগড়) প্রতিনিধি ॥ পঞ্চগড়ের বোদায় ঘুষ-দুর্নীতি বিরোধী ক্যাম্পেইন করেছেন দিনাজপুর হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (হাবিপ্রবি) শিক্ষার্থী সাইফুল ইসলাম শান্তি। গতকাল রবিবার সে বোদা বাজারের বিভিন্ন গুরুত্বপুণ এলাকায় হ্যান্ডমাইকে ঘুষ-দুর্নীতি বিরোধী বক্তব্য প্রদান করেন। সাইফুল ইসলাম শান্তি তার বক্তব্যে বলেন, দেশবরেণ্য প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে দেশব্যাপী যে দুর্নীতি বিরোধী অভিযান চলছে সেই অভিযান কে আমি পূর্ণ সমর্থন ও অভিনন্দন জানাচ্ছি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দুর্নীতির বিরুদ্ধে আপনার অভিযান অব্যাহত রাখুন এবং অভিযানটি সচিবালয় থেকে শুরু করে ইউনিয়ন ও প্রত্যন্ত গ্রাম পর্যন্ত প্রসারিত করুন। আপনার সাহসী অভিযান কে আমরা বাংলার তরুন সমাজ সাধুবাদ জানাচ্ছি এবং আমরা ছাত্র সমাজ আপনার সাথে আছি।

শান্তি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দুনীতি বিরোধী অভিযানের সমর্থন আদায় করতে ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে জনসচেতনতা সৃষ্টির জন্য আমি মাস ব্যাপী এক দুর্নীতি বিরোধী জনসচেতনতা মূলক প্রচারনায় নেমেছি। সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারিরা জনগনের করের টাকায় বেতন ভাতা পায়। উনাদের দায়িত্ব হলো জনগনকে সেবা দেওয়া আর এটা তাদের করতে হবে। জনগন ঘুষ দেন বলেই অফিসের বড় কর্তা থেকে শুরু করে পিয়নও রাতারাতি বড়লোক হয়ে যাচ্ছে জমি কিনছে বাড়ি কিনছে, বড় বড় ভবন নির্মান করছে। আর জনগন(  আপনারা) এসবের মালিক হয়েও কষ্টে দিন যাপন করছেন, ঝুপড়ীতে ও কুড়ের ঘরে থাকছে, সবাইকে বলছি এই ঘুষ দেওয়ার মন-মানসিকতার পরিবর্তন করতে হবে ঘুষকে না বলতে হবে।

তিনি আরও বলেন, এলাকাবাসী  আপনারা যদি সুখে শান্তিতে থাকতে চান, ছেলে মেয়েদের কে আদর্শ মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে চান তবে সবাইকে একজোট হয়ে দুর্নীতিকে না বলতে হবে, ঘুষ দেওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে। যে দেশের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, যে দেশে বিশ্বনন্দিত প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় সেদেশে আপনারা স্বাধীন, আপনারা মুক্ত! সুতরাং আপনারা নির্ভয়ে চলবেন, নির্ভয়ে দুর্নীতির বিরুদ্বে কথা বলবেন, ঘুষ ছাড়াই রাষ্ট্রীয় সেবা গ্রহন করার জন্য সর্বদা তৎপর থাকবেন। বঙ্গবন্ধু নিজেও দুর্নীতির বিরুদ্ধে আজীবন লড়াই করেছেন। আপনাদেরকেও বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে লানন করে দুর্নীতির বিরুদ্ধে হুংকার দিতে হবে প্রয়োজন হলে দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াই করে বঙ্গবন্ধুর মতো দেশের জন্য নিজের জীবন উৎর্সগ করতে হবে। আর এটাই হলো দেশপ্রেম। মনে রাখবেন ঘুষ দেওয়া যদি আপনারা বন্ধ না করেন তবে নিজ ঘরে বসবাস করতে গেলেও আপনাদের একদিন ঘুষ দিতে হবে,নিজের জমিনে ফসল ফলাতে গিয়েও আপনারাদের কে ঘুষ দিতে হবে। তখন আপনাদের জীবনেও নেমে আসবে অবর্ননীয় দুঃখ দুর্দশা, পেট পুড়ে তখন দু’মুঠো ভাতও খেতে পারবেন না, দেশে নেমে আসবে চরম অস্থিরতা, সুতরাং এখন থেকেই সবাইকে  দুনীতির বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলতে হবে। আপনি আমি যদি চুপ থাকি তবে দুর্নীতি বাজরা সাহস পেয়ে যাবে এবং একের পর এক দুর্নীতি করে যাবে, আর আপনি আমি যদি প্রতিবাদ করি তবে দুর্নীতিবাজরা ভয় পেয়ে যাবে এবং কেউ আর দুর্নীতি করার সাহসই পাবে না। আসুন আমরা সবাই নিজ নিজ জায়গায় থেকে দুর্নীতির বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলি এবং নিজেরাও ঘুষ দেওয়া থেকে বিরত থাকি। মনে রাখবেন আপনি আমি জেগে উঠলে জেগে উঠবে পুরো বাংলাদেশ।  আর বাংলাদেশ জেগে উঠলে এ দেশ থেকে দুর্নীতি চিরতরে বিদায় নিবে। উল্লেখ্য যে, দিনাজপুর হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এমবিএ তে অধ্যয়নরত মার্কেটিং বিভাগের শিক্ষার্থী সাইফুল ইসলাম শান্তির বাড়ি পঞ্চগড় সদর উপজেলার আমলাহার এলাকায়। এর আগেও সাইফুল ইসলাম শান্তি ছেলেধরা গুজব, প্রশ্নফাসের বিরুদ্ধে জনসচেতনতা তৈরি করতে তেঁতুলিয়া থেকে টেকনাফ পর্যন্ত পায়ের হেঁটে প্রচারণা চালিয়েছেন।