রবিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ৮ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

‘মানুষ ভজলে সোনার মানুষ হবি’ স্লোগান নিয়ে মঙ্গল শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত

সোনার মানুষ হওয়ার কামনায় শুরু হয় বাংলা নববর্ষের এবারের মঙ্গল শোভাযাত্রা। এবারের মঙ্গল শোভাযাত্রার স্লোগান ‘মানুষ ভজলে সোনার মানুষ হবি।’

শনিবার সকাল ৯টায় শোভাযাত্রাটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা ইনস্টিটিউটের সামনে থেকে শুরু হয়ে হোটেলে ইন্টারকন্টিনেন্টাল (সাবেক শেরাটন), শাহবাগ ও টিএসসি মোড় ঘুরে ফের চারুকলার সামনে গিয়ে শেষ হয়। শোভাযাত্রায় আবহমান বাংলার ইতিহাস-ঐতিহ্যের সঙ্গে সাম্প্রতিক ঘটনার প্রতীকী নানা বিষয় স্থান পেয়েছে।

মঙ্গল শোভাযাত্রায় এবার আটটি প্রতীক-সূর্য, বক-মাছ, হাতি, পাখি, সাইকেলে মা-শিশু, টেপা পুতুল, মহিষসহ চারটি পাখি ও জেলে। এগুলো বাঁশ, কাঠ ও বিভিন্ন রঙের কাগজ দিয়ে তৈরি। রাজা-রানীসহ নানা আকৃতিক রং ও মুখোশ রয়েছে শোভাযাত্রায়। এছাড়া রয়েছে রঙিন মা পাখি ও ছানার প্রতীকী কাঠামো।

শোভাযাত্রায় সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামানসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও সর্বস্তরের হাজার হাজার মানুষ স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশ গ্রহণ করেন। এ সময় কঠোর নিরাপত্তার চাদরে মুড়িয়ে রাখা হয় পুরো এলাকাকে।

ঢাক-ঢোলের বাদ্য আর তরুণ-তরুণীদের হৈ-হুল্লোড় আর আনন্দ উল্লাস মেতে রয়েছে পুরো শোভাযাত্রা। সকাল থেকেই টিএসসি, দোয়েল চত্বর, শাহবাগ ও এর আশপাশের এলাকায় মানুষ জড়ো হতে থাকে। নয়টার মধ্যেই পুরো এলাকা লোকে লোকারণ্য হয়ে ওঠে। লাল-সাদা পোশাকে উচ্ছল নারীদের মাথায় শোভিত নানান রঙ্গের ফুলের টায়রা। তরুণদের পরনে ছিল লাল-সাদা পাঞ্জাবি।

প্রসঙ্গত, ২০১৬ বছরের নভেম্বর মাসে জাতিসংঘের সংস্থা ইউনেস্কোর সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় স্থান করে নিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা ইনস্টিটিউটের উদ্যোগে হওয়া এ শোভাযাত্রা।