মঙ্গলবার ১৯ নভেম্বর ২০১৯ ৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

মিডিয়াকর্মীদের সাথে পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের অবহিতকরণ কর্মশালায়- দিনাজপুর জেলা প্রশাসক

Halthদিনাজপুর প্রতিনিধি: দিনাজপুর জেলা প্রশাসক আহমদ শামীম আল রাজী বলেছেন, পরিবার পরিকল্পনায় দেশের সব জেলার চেয়ে দিনাজপুর অত্যন্ত সচেতন। তারপরেও সাংবাদিকদের লেখনীর মাধ্যমে আরও সচেতনতা বাড়াতে হবে দিনাজপুরবাসীর। তিনি সাংবাদিকদের ভুমিকা উলে­খ করে বলেন, একমাত্র স্থানীয় সাংবাদিকরাই পারে পরিবার পরিকল্পনায় সর্বোচ্চ সচেতন করে তুলতে জনগনের।

গতকাল শনিবার সকালে দিনাজপুর সিভিল সার্জন অডিটোরিয়ামে জেলা পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের আয়োজনে প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়াকর্মীদের অবহিতকরণ কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উক্ত কথাগুলো ব্যক্ত করেন।

দিনাজপুর জেলা পরিবার পরিকল্পনার ডিডি ডাঃ দিদারুল ইসলামের সভাপতিত্বে অবহিতকরন কর্মশালার প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন দিনাজপুর জেলা প্রশাসক আহমেদ শামীম আল রাজি। বিশেষ অতিথি ছিলেন ডাঃ গোপীনাথ বসাক ,ডাঃ নুরুল হুদা ,ডাঃ ফরিদা ইয়াসমীন ,ইমাম হোসেন, লায়লা আরা আরজু  প্রমুখ।

প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক বলেন সাংবাদিক সমাজের দর্পন। কাদের লেখনীর মাধ্যমে সমাজের  ভাল মন্দ দিক গুলো ধরেন। যাতে জাতি , সমাজে ও দেশের মঙ্গল বয়ে আনে।

ডাঃ নুরুল হুদা বলেন , ছোট পবিরার গঠনে আমাদের উদ্দেশ্য হলো শিশু মৃত্যুর হার কমিয়ে আনা। তিনি আরোও বলেন ১ লক্ষ গর্ভবতি মা সন্তান জম্ম দানের সময় ১৯৪জন মা মারা যায় । এই সংখ্যা কমিয়ে আনা সম্ভব তবে তার আগে আমাদেরকে ১৮/১৯ বছর বয়সে  মা হওয়া ঝুকি থাকে শতভাগ। কারন ১৮/১৯ বছর বয়সে একজন মেয়ে মানুয় সে নিজেই শিশু।

পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা লায়লা আরা আরজু জানান, আমাদের দেশের মেয়েরা ছোট বেলা থেকে বাবার সংসার থেকে কম পুষ্টিকর খাবার খেয়ে স্বামীর বাড়ী যাওয়া পর্যন্ত পুষ্টিহীনতায় ভুগে। কারন ছেলেদের তুলনায় সব সময় কম পুষ্টি খাবার, পবিরারের সকল সদস্যের খাবারের পরের খাবারই হচ্ছে পুষ্টিহীনতার মুল কারন।

কর্মশালায় দিনাজপুরের প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সকল সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।