বুধবার ১৪ নভেম্বর ২০১৮ ৩০শে কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

মোনাভী আল-বাংলাদেশ প্রাইভেট লিঃ নামক কোম্পানী প্রায় ১২ কোটি টাকা নিয়ে উধাও!!

চন্দন মিত্র : দিনাজপুর জেলার সদর উপজেলা, বীরগঞ্জ ও ফুলবাড়ী হতে প্রায় ৪০০ এর অধিক গ্রাহকের কাছ থেকে প্রতারণা করে প্রায় ১২ কোটি টাকা আত্মসাৎ করে রাতা-রাতি পালিয়ে যায় মোনাভী আল-বাংলাদেশ প্রাইভেট লিঃ নামক এক কোম্পানী। ঘটনার সূত্রে জানা যায় যে, সাধারণ অসহায়, সহজ, সরল মানুষকে বোকা বানিয়ে চাকুরির প্রলোভন, ডিলারশীপ ও রিয়েল এস্টেট এর ব্যবসার কথা বলে এ বিপুল অংকের টাকা নিয়ে আত্মগোপন করেছে। উক্ত কোম্পানীতে চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্বে ছিলেন মোঃ জামাল এবং দিনাজপুর জেলার ব্যবস্থাপনা পরিচালকের দায়িত্বে কর্মরত ছিলেন আনসার ও ভিডিপির খিলগাঁও অফিসের অফিস সহকারী ও বীরগঞ্জ, পলাশবাড়ী এলাকার আবুল কালাম আজাদের স্ত্রী মোছাঃ শামীমা আজাদ, পরিচালকের দায়িত্বে ছিলেন বাবুল হোসেন এবং ব্যবস্থাপকের দায়িত্বে সুজন। উল্লেখিত ব্যক্তিদ্বয় বিভিন্ন ছেলে-মেয়েকে চাকুরীতে নিয়োগের কথা বলে ৬০ হাজার টাকা করে আগাম নিত। বিগত জানুয়ারী মাস থেকে মে মাস পর্যন্ত তারা দিনাজপুর মিশন রোড, উত্তর গোসাইপুর, বীরগঞ্জ ও ফুলবাড়ীতে শাখা অফিস করে সাধারণ অসহায় মানুষকে ঠকিয়ে অফিস বদ্ধ করে পালিয়ে গেছে। ক্ষতিগ্রস্থ গ্রাহক বীরগঞ্জ থানার শাখা ব্যবস্থাপক উমর ফারুক, অফিস সহকারী শ্রাবন রায় এর সাথে মুঠোফোনে কথা বললে তারা জানান যে, বীরগঞ্জ থেকে আমরা সহ আরো ১৪ জন গ্রাহকের কাছ থেকে চাকুরির প্রলোভন ও গ্রাহক আনতে পারলে ৬ হাজার টাকা করে কমিশনের ভিত্তিতে আমাদের কাছ থেকে ৬০ হাজার টাকা করে জামানত নেয়। এভাবে একই কায়দায় দিনাজপুর সদর উপজেলা ও ফুলবাড়ী হতে বিভিন্ন লোকের কাছ থেকে প্রায় ১২ কোটি টাকা লোপাট করে অফিস বন্ধ করে পালিয়ে যায় এই মর্মে আজ প্রেস কনফারেন্স সহ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বলে জানান ক্ষতিগ্রস্থরা। অপরদিকে ব্যবস্থাপনা পরিচালক শামীমা আজাদের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তার মুঠোফোন বন্ধ দেখায়। একই ভাবে অন্যান্য কর্মকর্তাদের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তাদেরও মুঠোফোন বন্ধ দেখায় এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালকের স্বামী আবুল কালাম আজাদের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বিষয়টি না জানার কথা বলে এড়িয়ে যান এবং ব্যস্ত আছে বলে মোবাইল কেটে দেন। উক্ত ব্যক্তিদ্বয় বর্তমানে ঢাকায় অবস্থান করছে বলে বিশেষ এক সূত্রে জানা যায়।