রবিবার ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮ ২রা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

যুক্তরাষ্ট্রে ঘূর্ণিঝড় মাইকেলের ‘ধ্বংসযজ্ঞ’, নিহত ৬

যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যে আঘাত হানা ঘূর্ণিঝড় মাইকেল ‘অকল্পনীয় ধ্বংসযজ্ঞ’ চালিয়েছে। এ ঘটনায় অন্তত ছয়জন নিহত হয়েছেন এবং উদ্ধারকর্মীদের বিশেষ অভিযানে ২৭ জনকে বিপদজনক অবস্থা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১১ অক্টোবর) ফ্লোরিডার গভর্নর রিক স্কট এ কথা জানিয়ে বলেন, চিরতরের জন্য অনেকের জীবন বদলে গেছে। অনেক পরিবার সবকিছু হারিয়েছে।

গভর্নর রিক স্কট ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের লোকদের শতর্ক করে দিয়ে বলেন, কর্তৃপক্ষের অনুমতি ব্যতীত অবস্থার পরিবর্তন না হলে কেউ বাসস্থানে ফিরবেন না।

এর আগে বুধবার (১০ অক্টোবর) ঘূর্ণিঝড় ২৫০ কিলোমিটার গতিতে আঘাত হানে। ঘূর্ণিঝড়ের আঘাতে ফ্লোরিডার অনেক ঘরবাড়ি ধ্বংস হয়ে গেছে, অনেক গাছ ভেঙে গেছে এবং মাইকেলের কারণে ফ্লোরিডা, আলাবামা, ক্যারোলাইনা ও জর্জিয়ার ৯ লাখেরও বেশি বাড়ি, ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।

আঘাত হানার সময় পাঁচ মাত্রার প্রায় কাছাকাছি শক্তি ধারণ করা মাইকেলের কারণে বিভিন্ন এলাকায় ৯ ফুট পর্যন্ত উঁচু ঢেউ দেখা গেছে। তীব্র বাতাস ও ঝড়ের তাণ্ডবে গোড়া থেকে উপড়ানো বাড়ি এবং ভয়াবহ তাণ্ডবের ছবি মিলেছে হেলিকপ্টার থেকে নেওয়া সিএনএনের ভিডিও ফুটেজেও।

বিপুল পরিমাণ ধ্বংসস্তূপের পাশাপাশি সড়কগুলোতে বিদ্যুতের তার ছড়ানো ছিটানো অবস্থায় পড়ে রয়েছে। ঘূর্ণিঝড় মাইকেলের ক্ষতি মোকাবিলায় চারটি অঙ্গরাজ্য—ফ্লোরিডা, অ্যালাবামা, জর্জিয়া ও নর্থ ক্যারোলাইনায় জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় হারিকেন সেন্টার (এনএইচসি) জানিয়েছে, এটি প্রতি ঘণ্টায় ৮০ কিলোমিটার বেগে জর্জিয়ার ওপর দিয়ে বয়ে এখন তা নর্থ ক্যারোলাইনার গ্রিনসবরোর কাছে রয়েছে।

গত রবিবার ফ্লোরিডার ৩ লাখ ৭০ হাজারেরও বেশি বাসিন্দাকে নিরাপদ স্থানে সরে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। তবে কর্তৃপক্ষের ধারণা অনেকেই এই সতর্কবার্তা আগ্রাহ্য করেছিল।