শুক্রবার ২৩ অক্টোবর ২০২০ ৭ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

রংপুরে ধর্ষণ মামলায় ৩ আসামির যাবজ্জীবন

রংপুর প্রতিনিধি: রংপুরের বদরগজ্ঞে এক কিশোরীকে সংঘবদ্ধভাবে ধর্ষণের ঘটনায় দীর্ঘ ১৭ বছর পর তিন আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং প্রত্যেককে এক লাখ টাকা করে জরিমানার আদেশ দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) বিকালে রংপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালত-২ এর বিচারক রোকনুজ্জামান এ রায় দেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০০৩ সালের ৯ মার্চ বদরগঞ্জের মুচরহাট ডাঙ্গার বাড়ি গ্রামের এক বাড়িতে রাতে নুর ইসলামের নেতৃত্বে তিন আসামি দরজা ভেঙে প্রবেশ করে। তারা ওই বাড়ির ১৪ বছরের কিশোরী কন্যাকে অস্ত্রের মুখে তুলে নিয়ে যায়। এরপর বাড়ির অদূরে মাঠে নিয়ে নুর ইসলাম, মোস্তফা ও মোজাম্মেল হক ধর্ষণ করে। এতে ওই কিশোরী জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। পরে রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে প্রথমে বদরগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়, সেখানে অবস্থার অবনতি ঘটলে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় ১৪ মার্চ ২০০৩ সালে নির্যাতনের শিকার কিশোরীর বাবা বাবলু মিয়া বাদী হয়ে বদরগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেন। দীর্ঘ ১৭ বছর ধরে মামলাটি চলার পর ১০ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য ও জেরা গ্রহণ শেষে তিন আসামিকে দোষী সাব্যস্ত করে বিচারক যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দেন। আসামিরা পলাতক থাকায় বিচারক তার রায়ে বলেন তারা গ্রেফতার হওয়ার দিন থেকে রায় কার্যকর হবে।

এ বিষয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালত-২ এর পিপি জাহাঙ্গীর হোসেন তুহিন জানান, অনেক দেরীতে হলেও আসামিদের যাবজ্জীবন সাজা দিয়েছেন আদালত। এ রায়ের মাধ্যমে একটা ম্যাসেজ সমাজের কাছে পৌঁছাবে, অপরাধ করলে কেউই রেহাই পাবে না।

অন্যদিকে আসামি পক্ষের আইনজীবী আব্দুল কাদের বলেন, আমরা ন্যায়বিচার পাইনি। রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করা হবে বলে জানান তিনি।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email