রবিবার ৯ অগাস্ট ২০২০ ২৫শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

রংপুরে ভুয়া চিকিৎসকহ ছয় জন আটক

রংপুর প্রতিনিধি : প্রাতিষ্ঠানিক ডিগ্রি ছাড়াই দীর্ঘদিন ধরে চিকিৎসা দিচ্ছিলেন রংপুর নগরীর ধাপ এলাকার মোতালেব হোসেন রিপন। নিজের নামের সঙ্গে ব্যবহার করেন এমবিবিএস-এফসিপিএস উপাধিও। এছাড়া একটি ক্লিনিকও চালাচ্ছেন তিনি। যেখানে করোনা রোগীদের চিকিৎসা দেয়া হতো। অবশেষে পুলিশের হাতে ধরা খেলেন এই ভুয়া চিকিৎসক। একইসঙ্গে আরো ছয়জনকে আটক করা হয়।

আটক অপর ব্যক্তিরা হলেন- ডা. মোতালেব হোসেন রিপনের সহকর্মী হিউম্যান কেয়ার ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিক মোস্তফা কামাল, ব্যবস্থাপক তৌফিক ইসলাম রাফি, পিএস, দালাল এরশাদ আলী, আব্দুর রউফ রেজাউল ও নয়া মিয়া।

বুধবার আরপিএমপির এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এডিসি (অপরাধ) কাজী মুত্তাকি ইবনু মিনান জানান, চিকিৎসা সংশ্লিষ্ট কোনো ডিগ্রি না থাকা সত্ত্বেও নিজের নামের সঙ্গে এমবিবিএস ও এফসিপিএসের মতো উপাধি ব্যবহার করতেন মোতালেব হোসেন রিপন। করোনাভাইরাসের পরীক্ষা ও চিকিৎসা দিতেন তিনি। এভাবেই দীর্ঘদিন ধরে রোগীদের সেঙ্গ প্রতারণা করেছেন এই ভুয়া চিকিৎসক।

কোতয়ালি থানার ওসি আব্দুর রশীদ জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার রাতে নগরীর ধাপ এলাকায় হিউম্যান কেয়ার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অভিযান চালানো হয়। এ সময় চিকিৎসকরা শিক্ষাগত সনদপত্র ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের রেজিস্ট্রেশনের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দেখাতে পারেননি। পরে ওই সাতজনকে আটক করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

ওসি আরো জানান, বর্তমানে দেশে করোনায় আক্রান্ত রোগীদের সেবা দিতে হিমশিম খাচ্ছেন চিকিৎসকরা। ঠিক সেই মুহূর্তে এক শ্রেণির অসাধু দালাল চক্র স্বাস্থ্যসেবাকে চরম হুমকির মুখে ফেলার চেষ্টা চালাচ্ছে।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email