সোমবার ২২ অক্টোবর ২০১৮ ৭ই কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

রংপুর মহানগর ও জেলা বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ

একুশে গ্রেনেড হামলার মামলায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ বিএনপি শীর্ষ নেতাদের বিরুদ্ধে রায়ের প্রতিবাদে ও বাতিলের দাবিতে রংপুর মহানগরীতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে রংপুর মহানগর বিএনপি ও জেলা বিএনপি।
বৃহস্পতিবার দুপুরে কেন্দ্রীয় কর্মসুচির অংশ হিসাবে মহানগর ও জেলা বিএনপি এবং সকল অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল বের করার চেষ্টা করলে পুলিশ বাধা দেয়। এসময় বিএনপি নেতাকর্মীদের সাথে পুলিশের বাগবিতন্ডা হয়। পরে পুলিশি বাঁধায় বিএনপি নেতারা দলীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ করে। কেন্দ্রীয় বিএনপির ক্ষুদ্র কুটির শিল্প সম্পাদক ও মহানগর বিএনপির সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মোজাফফর হোসেনের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির সভাপতি সাইফুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম মিজু,জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক রইচ আহমেদ,জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি সাহিদার রহমান জোসনা, মামুনুর রশিদ মামুন, মহানগর বিএনপির যুগ্ন সম্পাদক ও স্বেচ্ছাসেবক দল সভাপতি রাশেদ উন নবী বিপ্লব, মির্জা বাবর বাবলু, প্রচার সম্পাদক সেলিম চৌধুরী, সহ- প্রচার সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান বিপু, সহ-দপ্তর সম্পাদক শাহ আবু আলী মিঠু, মহানগর যুবদলের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক আতিকুল ইসলাম লেলিন, সাংগঠনিক সম্পাদক জহির আলম নয়ন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দল সভাপতি শহিদুল ইসলাম লিটন, মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি নুর হাসান সুমন ,জেলা ছাত্রদলের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল ইমরান সুজন প্রমুখ। সমাবেশে মহানগর ও জেলা বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল, স্বেচ্ছাসেবক দল, শ্রমিক দল, ওলামা দল,মহিলা দল নেতৃবৃন্দ অংশ নেয়। সমাবেশে বক্তারা বলেন, গ্রেনেড হামলার মামলাকে রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র হিসেবে ব্যবহার করেছেন সরকার। তারা বিএনপিকে ও দলের সিনিয়র নেতাদেরকে রাজনৈতিকভাবে মোকাবেলা করতে না পেরে মিথ্যা মামলা দিয়ে একের পর এক হয়রানি ও জুলুম করে যাচ্ছেন। এর পরিমাণ কোন দিনই ভালো হবে না বলে হুশিয়ারী দেন তারা। অবিলম্বে বিএনপি নেতাদের জড়িয়ে ষড়যন্ত্র মামলায় যে রায় দেয়া হয়েছে তা বাতিলের দাবি ও বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তিসহ নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন অনুষ্ঠানের দাবি জানান।