বৃহস্পতিবার ২৮ জানুয়ারী ২০২১ ১৪ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের সকল ইতিবাচক সংবাদ বর্জনের ঘোষণা

রংপুর প্রতিনিধি : রংপুরে সংবাদকর্মীর উপর পুলিশী হামলার ঘটনায় পরপর দু’দফা সময় চেয়ে মেট্রোপলিটন পুলিশ পদক্ষেপ না নেয়ায় ৩ দিনের আন্দোলন কর্মসূচী ঘোষনা করেছে টেলিভিশন ক্যামেরা জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন (টিসিএ), রংপুর।

বৃহস্পতিবার বেলা ১২টায় নগরীর সুমি কমিউনিটি সেন্টার মিলনায়তনে টিসিএ, রংপুরের সাধারণ সম্পাদক এহসানুল হক সুমন লিখিত বক্তব্যে আন্দোলন কর্মসূচী ঘোষনা করেন। কর্মসূচীর মধ্যে রয়েছে রোববার সকাল ১১টায় কাচারী বাজারে অবস্থান কর্মসূচী, রংপুর সিটি কর্পোরেশন ও জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি প্রদান, সোমবার সকাল ১১টায় কাচারী বাজারে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ এবং পহেলা ডিসেম্বর সকাল ১১টায় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ। এ সময় সাংবাদিক নেতারা মেট্রোপলিটন পুলিশের সকল ইতিবাচক খবর বর্জনেরও ঘোষনা দেন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, গত ১৭ নভেম্বর বিকেলে সিটি কর্পোরেশনের উচ্ছেদ অভিযানে পেশাগত দায়িত্বপালন করার সময় ইন্ডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের ক্যামেরাপার্সন লিমন রহমানকে সংঘবদ্ধভাবে ১০-১৫ জন পুলিশী পিটিয়ে ও লাথি মেরে গুরুতর আহত করে। এ ঘটনায় তাৎক্ষনিক রংপুরে কর্মরত সকল সাংবাদিকরা বিক্ষোভ করলে পুলিশ প্রশাসন তদন্ত কমিটি গঠন করে ৭২ ঘন্টার মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশসহ দোষী পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দেন। টিসিএ ঘটনার ফুটেজ পুলিশের কাছে সরবরাহ করেছে। ঘটনার ৭২ ঘন্টা পেরিয়ে যাওয়ার পরও তারা দোষী পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি।

এ ঘটনায় বিক্ষুব্ধ সাংবাদিকরা আন্দোলন কর্মসূচী পালন করলে আবারও প্রেসক্লাব, রিপোর্টাস্ ক্লাব, সিটি প্রেসক্লাব, টিসিএ, বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন, রংপুর ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনসহ বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠনের নেতাদের সাথে আলোচনা করে দু’দিনের সময় নেয় পুলিশ প্রশাসন।

গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় পুলিশ প্রশাসনের বেঁধে দেয়া সময় পেরিয়ে গেলে এখন পর্যন্ত তারা কোন সাংবাদিক সংগঠনের নেতা কিংবা টিসিএ’র নেতৃবৃন্দের সাথে যোগাযোগ পর্যন্ত করেনি। এতে করে টিসিএসহ রংপুরের সাংবাদিক সমাজের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে। সেই ন্যায় বিচার নিয়ে সংশয়েরও সৃষ্টি হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে আরও জানানো হয়, মেট্রোপলিটন পুলিশ প্রতিষ্ঠার পর থেকে দ্রুততম সময়ের মধ্যে ক্লুলেস মামলার রহস্য উদ্ঘাটন, বিভিন্ন মামলার তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করে প্রসংশিত হয়েছে। কিন্তু সাংবাদিকের উপর পুলিশী হামলার ঘটনায় কোন পদক্ষেপ না নেয়াসহ তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ না করায় আমরা হতভম্ব হয়ে পড়েছি। সমাজের দর্পন হিসেবে সাংবাদিকদের আখ্যায়িত করা হলেও আজ তারাই বিচার পাচ্ছেন না। এমতাবস্থায় সাংবাদিকের উপর পুলিশী হামলা ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তসহ অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণে আমরা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী, পুলিশের মহাপরিদর্শকের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, রংপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক রফিক সরকার, রিপোর্টাস্ ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শাহ্ বায়েজিদ আহমেদ, সিটি প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি শাকিল আহমেদ, টিসিএ’র সভাপতি শাহ নেওয়াজ জনি, বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন, রংপুরের সাধারণ সম্পাদক মমিনুল ইসলাম রিপন, , সিনিয়র সাংবাদিক আব্দুস সাহেদ মন্টু, লিয়াকত আলী বাদল, মাহবুবুল ইসলাম, আফতাব হোসেন, সাজ্জাদ হোসেন বাপ্পী, সরকার মাজহারুল মান্নান, শফিকুল ইসলাম শফিক, এসএম পিয়াল, নুর হোসেন চাঁদ, ফরহাদুজ্জামান ফারুক, সাইফুল ইসলাম, কানিজ আফরিন কনাসহ টিসিএ ও বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email