শুক্রবার ১৭ অগাস্ট ২০১৮ ২রা ভাদ্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

রেল ও বিদ্যুৎ খাতে এডিবি-র ৭২ কোটি ডলার ঋণ

বিদ্যুৎ ও বাংলাদেশ রেলওয়ে খাতের দুই প্রকল্পে প্রায় ৭২ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)। যার মধ্যে রেলের উন্নয়ন প্রকল্পের জন্য ৩৬ কোটি (প্রায় ২ হাজার ৮৮০ কোটি টাকা) ডলার এবং বিদ্যুৎ বিতরণ ব্যবস্থা প্রকল্পের জন্য আরও ৩৫ কোটি ৭০ লাখ ডলার ঋণ অনুমোদন করেছে সংস্থার পরিচালনা পর্ষদ। আগামী ২ আগস্ট রূপসা বিদ্যুৎ প্রকল্পের জন্য আরো একটি চুক্তি সই হবে।

মঙ্গলবার শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সচিব কাজী শফিকুল আযম ও বিশ্বব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর মনমোহন প্রকাশ রেলের প্রকল্পের জন্য ঋণচুক্তিতে সই করেন। পাঁচ বছরের গ্রেস পিরিয়ডসহ ২৫ বছরে এই ঋণের অর্থ পরিশোধ করতে হবে। চলতি বছর এটিই সংস্থার সঙ্গে প্রথম ঋণচুক্তি।

এ প্রকল্পের মাধ্যমে বাংলাদেশ রেলওয়ের জন্য ৭৫টি মিটার গেজ ও ৪০টি ব্রড গেজ লেকোমোটিভ ক্রয় করা হবে। এছাড়া, ১ হাজারটি বগি ওয়াগন এবং ১২৫টি লাগেজ ভ্যান কেনা হবে। এসব কেনা হলে রেলওয়ের সেবার মান বাড়ার পাশাপাশি নিরাপদ যাতায়াত নিশ্চিত করা সম্ভব হবে।

ফিলিপাইনের ম্যানিলায় সংস্থাটির পরিচালনা পর্ষদের সভায় প্যাকেজ সহায়তা হিসেবে উচ্চ প্রযুক্তিতে বিদ্যুৎ শক্তি উৎপাদনের জন্য ৩৫ কোটি ডলার ঋণ এবং ৭০ লাখ ডলারের অনুদান অনুমোদন করা হয়। ।সংস্থাটির ঢাকাস্থ কার্যালয় থেকে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ২০২১ সালের মধ্যে শতভাগ বিদ্যুতায়নের যে জাতীয় টার্গেট বাংলাদেশ নির্ধারণ করেছে, এই সহায়তা অর্জনে এই ঋণ ভূমিকা রাখবে।

এ অর্থ বরিশাল থেকে ফরিদপুর পর্যন্ত ২৩০ কিলোভোল্টের ১২৬ কিলোমিটার বিতরণ লাইন স্থাপন ও বগুড়া থেকে রোহনপুর পর্যন্ত ৪০০ কিলোভোল্টের ১০৪ কিলোমিটার লাইন স্থাপন করা হবে।

বর্তমানে দেশে বিদ্যুৎ উৎপাদিত হয়েছে ৯ হাজার ৪৭৯ মেগাওয়াট। ২০২০ সালের মধ্যে বিদ্যুতের মোট চাহিদা ১৩ হাজার ৩০০ মেগাওয়াট এবং ২০২৫ সালের মধ্যে ১৯ হাজার ৯০০ মেগাওয়াট ছাড়িয়ে যাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এডিবি-র এই সাহায্য বাংলাদেশের পাওয়ার ট্রান্সমিশন সিস্টেমকে আরও দক্ষ, নির্ভরযোগ্য, এবং পরিবেশ সহায়ক করবে বলে আশা করা যায়।