বুধবার ১৩ নভেম্বর ২০১৯ ২৯শে কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

লালমনিরহাটে মৃত গরুর মাংস বিক্রয়ের দায়ে কসাইয়ের এক বছরের কারাদন্ড

লালমনিরহাট প্রতিনিধি: লালমনিরহাটে মৃত গরুর মাংস বিক্রয়ের অপরাধে ইদ্দি আলী (৪০) নামে এক কসাইকে (মাংস ব্যবসায়ী)এক বছরের সশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেছে ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক।
সোমবার (১৩ মে) বিকেলে সদর উপজেলার গোকুন্ডা ইউনিয়নের মুস্তফী বাসস্টান্ডে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) শ্রীমতি জয়শ্রী রানী রায় এ রায় প্রদান করেন। ইদ্দি কসাই গোকুন্ডা ইউনিয়নের হুজুরের বটেরতল এলাকার খোকা মিয়া ছেলে।
মুস্তফী বাস স্টান্ডের মটর শ্রমিক ইউনিয়ন মুস্তফি শাখার সাধারন সম্পাদক আখেরুল ইসলাম আখের জানান, লোক মুখে জানতে পারি একটি ভ্যানে করে মৃত গরুর জবাই করা মাংস বাসস্টান্ডে বিক্রয়ের জন্য নিয়ে আসা হচ্ছে। তাই তিনি তার লোকজন নিয়ে রাস্তায় দাড়িয়ে অপেক্ষা করতে থাকেন। এর কিছুক্ষন পর দেখতে পান একটি ভ্যানে করে গরুর মাংস নিয়ে আসা হচ্ছে। পরে ভ্যানটি থামিয়ে মাংসসহ ব্যবসায়ী ইদ্দিকে আটক করে পুলিশে খবর দেয়া হয়। এ সময় ভ্যান চালক পালিয়ে যায়।
পরে পুলিশ এসে আটক কসাই (মাংস ব্যবসায়ী) ইদ্দি আলীকে ভ্রাম্যমান আদালতে হাজির করে এবং সে তার দোষ স্বীকার করলে ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক সদর উপজেলা নির্ববহী অফিসার (ইউএনও) জয়শ্রী রানী রায় তাকে এক বছরের সশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন।
ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক সদর উপজেলা নির্ববহী অফিসার (ইউএনও) জয়শ্রী রানী রায় বলেন, ভোক্তা অধিকার আইনে মানুষের শরীরের ক্ষতি বা মৃত্যু হতে পারে এমন খাবার বিক্রয় করা সম্পুর্ন অপরাধ। ওই মাংস ব্যবসায়ী মৃত গরুর মাংস বিক্রি করছিল যা স্থাণীয় লোকজন প্রমান দিয়েছে। এ অপরাধে ওই মাংস ব্যবসায়ীকে এক বছরের কারাদন্ড প্রদান করা হয়েছে। এ সময় ওই মৃত গরুর মাংস গুলো মাটির নিচে পুতে ফেলা হয়। তিনি আরো বলেন, এ সময় একই জায়গায় মোস্তাফিজার রহমান নামে এক পোল্ট্রি ফিড ব্যবসায়ীর ব্যবসায়ীক লাইসেন্স না থাকায় ২হাজার টাকা জড়িমানা করা হয়।