রবিবার ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯ ১লা পৌষ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

শেষ পর্যন্ত মানুষ স্বস্তিতে বাড়ি ফিরেছেন-সেতুমন্ত্রী

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, গতকাল শেষ পর্যন্ত মানুষ স্বস্তিতে বাড়ি ফিরেছেন। আমি আশা করি, যারা ঘরে ফিরেছেন, ঈদের পরেও তারা কর্মস্থলে ফিরে আসবেন।”

সোমবার নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বড় রাজাপুর গ্রামে নিজ এলাকায় ঈদুল আজহার নামাজ আদায় শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন। 

মন্ত্রী বলেন, “নদীতে প্রচণ্ড স্রোত ও ভারি বৃষ্টির জন্য চলাচল বিঘ্নিত হয়েছে, যানজটও হয়েছে। পশুবাহী গাড়ির জন্য কোথাও কোথাও সমস্যা হয়েছে। ঢাকা-চট্টগ্রাম, ঢাকা-সিলেটসহ ঢাকা-ময়মনসিংহ সব রুটই ভালো ছিল। একটি রুটে সমস্যা হয়েছে, ঢাকা-টাঙ্গাইল রুটের বঙ্গবন্ধু সেতুর ওপারে নলকা পর্যন্ত সমস্যা হয়েছে। সেটা গতকাল ছিল না। শেষটা যার ভালো, সেটাই ভালো।

ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, “আমাদের আইন প্রয়োগকারী সংস্থা এবং আমাদের ইঞ্জিনিয়াররা, মালিক-শ্রমিক সবাই সমন্বিতভাবে মাঠে আছেন। ঈদের দিনও অনেকে রাস্তায় দায়িত্ব পালন করছেন। যেকোনো ধরনের পরিস্থিতি আসুক না কেন, ভারি বৃষ্টি-দুর্যোগ মোকাবিলা করে জনগণ যেন কর্মস্থলে ভালোভাবে ফিরতে পারেন, সে ব্যাপারেও আমরা সতর্ক আছি, সাবধান আছি, প্রস্তুত আছি।”

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, “ঈদের দিনে এটাই আমাদের প্রার্থনা, বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এ দেশ থেকে সাম্প্রদায়িক অপশক্তির মূল উৎপাটন করা হবে।”

এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও নোয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরী, বসুরহাট পৌর মেয়র আবদুল কাদের মির্জাসহ দলের নেতাকর্মীরা।

এর আগে মা-বাবার কবর জিয়ারত এবং স্থানীয় মুসল্লি ও নেতাকর্মীদের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন ওবায়দুল কাদের।

সিঙ্গাপুরে দুই মাস ১০ দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর গত ১৫ মে দেশে ফেরেন সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। প্রায় পাঁচ মাস পর নিজ নির্বাচনী এলাকায় আসেন তিনি।