মঙ্গলবার ২৩ অক্টোবর ২০১৮ ৮ই কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

সবাইকে বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হতে হবে : প্রধানমন্ত্রী

বিদ্যুৎ ব্যবহারে সবাইকে সাশ্রয়ী হওয়ার তাগিদ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বিদ্যুৎ উৎপাদনে যে পরিমাণ খরচ হয় তার থেকে অনেক কম খরচে আমরা বিদ্যুৎ দিচ্ছি। আমরা যেন বিদ্যুতের অপচয় না করি। সবাইকে বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হতে হবে।

বৃহস্পতিবার গণভবনে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় ৪১০ মেগাওয়াট কম্বাইন্ড সাইকেল পাওয়ার প্লান্ট বিদ্যুৎ কেন্দ্রের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনকালে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী এ সময় তার সরকারের আমলে দেশের বিদ্যুৎ খাতের উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে বলেন, উন্নয়ন করতে গেলে যোগাযোগ ব্যবস্থার পাশাপাশি বিদ্যুৎ ব্যবস্থারও উন্নয়ন করতে হয়। কিন্তু বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের সময়ে এ খাতের কোনো উন্নয়ন হয়নি। বিদ্যুত নেই, কিন্তু রাস্তার পাশে খাম্বা দিয়ে গেছে। খালেদা জিয়ার ছেলে খাম্বা নির্মাণের ব্যবসা শুরু করেছিল।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, ২০০৯ সালে দেশে বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা ছিল ৪৯৪২ মেগাওয়াট। ২০১৮ সালে এসে তা দাঁড়িয়েছে ১৬ হাজার ৪৫৬ মেগাওয়াটে। তখনকার এক কোটি ৮ লাখ গ্রাহক বেড়ে হয়েছে ২ কোটি ৮৫ লাখে। বিদ্যুৎ সুবিধার আওতায় আসা মানুষের সংখ্যা ৪৭ শতাংশ থেকে বেড়ে হয়েছে ৯০ শতাংশ।

২০১৭ সালে দেশের ৩৬টি উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়নের উদ্বোধন করা হয়েছিল। এবারের ১৫টি উপজেলা মিলে এ সংখ্যা দাঁড়ালো ৫১তে।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, আরও ১৩৫টি উপজেলা শতভাগ বিদ্যুতায়নের জন্য প্রস্তুত হয়ে উদ্বোধনের অপেক্ষায় আছে। চলতি বছরের মধ্যে ৪৬০টি উপজেলাকে শতাভাগ বিদ্যুতায়নের আওতায় আনার লক্ষ্য রয়েছে সরকারের।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিদ্যুৎ উৎপাদনে তার সরকার পরিকল্পনামাফিক কাজ করে যাচ্ছে। ২০২১ সালে মধ্যে ২৪ হাজার মেগাওয়াট এবং ২০৪১ সালের মধ্যে ৬০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুত উৎপাদনের পরিকল্পনা রয়েছে সরকারের।

আর এসব বিদ্যুত শতভাগ মানুষের কাছে পৌঁছনো ছাড়াও শিল্পাঞ্চলে সরবরাহ করা হবে। যে লক্ষ্যে দেশের বিভিন্ন স্থানে ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলার কথা বলেন সরকারপ্রধান।

প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব নজিবুর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু এবং প্রধানমন্ত্রী কার্যালয় ও বিদ্যুৎ বিভাগের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।