সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ ৩০শে মাঘ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

সরকারের ক্ষমতা থাকলে রাস্তা করে দেখাক

সুবল রায়, বিরল (দিনাজপুর) প্রতিনিধি ঃদিনাজপুরের বিরল উপজেলার আজিমপুর ইউনিয়নের মোলান পুকুর গুচ্ছ গ্রামের রাস্তা ক্ষমতার জোড়ে বন্ধ করলেন জনৈক কহিনুর বেওয়া। গুচ্ছ গ্রামবাসী রাস্তা বন্দি অবস্থায় রয়েছে। কর্তপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা।
সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, বিরল উপজেলার আজিমপুর ইউনিয়নের মোলান পুকুর পাড়ে সরকার কর্তৃক বিগত এক বছর পূর্বে ৩০টি অসহায় ভুমিহীন পরিবারকে আবাসনের ব্যবস্থা করা হয় এবং গত ১৫ দিন পুর্বে গুচ্ছ গ্রামটির উন্নয়ন কল্পে রংপুর বিভাগের বিভাগীয় কমিশনার কাজী আহম্মেদ হোসেন পরিদর্শন করেন। এরই মধ্যে গত রোববার দুপুরে এলাকার একটি কুচক্রী মোহলের উষ্কানীতে গুচ্ছ গ্রামের যাতায়াতের একমাত্র রাস্তাটি জনৈক কহিনুর বেওয়া তার লোক জন দিয়ে কেটে তুলে ফেলেন। বর্তমানে ঐ গুচ্ছ গ্রামের ৩০টি পরিবারের লোকজন রাস্তা বিহীন ভাবে চলাফেরা করছেন।
স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান নাজমুল হায়দার স্বপন বলেন, বিভাগীয় কমিশনার স্যার আসার আগে আমি ৪০ দিনের কর্মসুচীর মাধ্যমে রাস্তাটি প্রসারিত করি। কিন্তু দুক্ষ জনক হলেও সত্যযে জনৈক কহিনুর বেওয়া সম্পুর্ণ গায়ের জোড়ে তার লোকজন দিয়ে রাস্তাটি তুলে ফেলেন। বর্তমানে গুচ্ছ গ্রামের লোকজন রাস্তার অভাবে চলাফেরা করতে পারছেননা। এছাড়াও ঐ গুচ্ছ গ্রামে এলাকার সবচেয়ে বড় ঈদগাঁ মাঠ রয়েছে। রাস্তাটি দ্রুত মেরামত করা না হলে গুচ্ছগ্রাম বাসীর পাশাপাশী ঈদ জামাতের লোকজন সেখানে যেতে পারবেন না।
এব্যাপারে কহিনুর বেওয়ার সাথে কথা হলে তিনি জানান, আমার জায়গার উপর দিয়ে রাস্তা করা হয়েছিল, তাই আমি কেটে ফেলেছি। কারকি অসুবিধা হবে আমার দেখার বিষয় না। সরকারের ক্ষমতা থাকলে রাস্তা করে দেখাক।
এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবিএম রওশন কবীর জানান, বিষয়টি অবগত হয়েছি। উপজেলা চেয়ারম্যান আ.ন.ম বজলুর রশীদ ও স্থানীয় চেয়ারম্যান নাজমুল হায়দার স্বপনকে বিষয়টি দেখার জন্য বলেছি এবং রাস্তার অন্যান্ন জমির মালিকদের সাথে কথা হয়েছে তারা রাস্তার জমি দিতে প্রস্তুত। তারা দিলে কহিনুর বেওয়াও দিয়ে বাদ্য থাকিবে। বিষটি দ্রুত সুরাহার প্রকৃয়া চলছে।

%d bloggers like this: