বুধবার ১ এপ্রিল ২০২০ ১৮ই চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

সাকিব যেন বললেন হ্যালো অস্ট্রেলিয়া

প্রতিদিন ডেস্ক :ব্যাট হাতে যখন নামলেন, সাকিব আল হাসান সম্পর্কে কৌতূহল দেখা গেল ধারাভাষ্য কক্ষে। ডাগআউটে বসা অ্যাডিলেড স্ট্রাইকার্সের কোচ সরাসরি যুক্ত হলেন ভাষ্যকারদের সঙ্গে। সাকিব কেমন খেলোয়াড়—এসব প্রশ্নের উত্তর দিতে হচ্ছিল কোচকে। কিন্তু আসল উত্তর সাকিবই দিলেন, ২২ গজের উইকেটে।

রোববার অ্যাডিলেড ওভালে বিগ ব্যাশ লিগে সিডনি সিক্সার্সে বিপক্ষে ৩০ বলে ৪৬ রানের ইনিংসটি দিয়ে সাকিব যেন গ্যালারি-ভরা দর্শকদের উদ্দেশে বললেন, ‘হ্যালো অস্ট্রেলিয়া।’

শুক্রবার দুপুরে অল্প সময়ের নোটিশেই উড়ে গিয়েছিলেন অ্যাডিলেডে। সেখানে পৌঁছানোর কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানেই নেমে যেত হলো মাঠে। তবে দীর্ঘ ভ্রমণক্লান্তি এতটুকুও স্পর্শ করেনি বিশ্বের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডারকে। বরং স্বাচ্ছন্দ্যে, স্বতঃস্ফূর্তভাবেই শাসন করেছেন সিডনি সিক্সার্সের বোলারদের।

নিজের জাত চেনানোর জন্য মঞ্চ প্রস্তুতই ছিল। ৩২ রানে অ্যাডিলেড স্ট্রাইকার্স হারায় ৪ উইকেট। দলের এমন বিপর্যয়েই হাল ধরেন সাকিব। মার্কাস নর্থের বলে দুই রান নিয়ে শুরু করলেন। ব্যস, চলতে থাকল ১৫.৬ ওভার অবদি। এর মাঝে অবশ্য ২৫ রানে একবার ‘হাফ চান্স’ দিয়েছিলেন। কঠিন ক্যাচটা নিতে পারেননি সিডনির বোলার।

এরপর সাকিব যেন আরও আগ্রাসী হয়ে ওঠেন। ডিপ মিড উইকেট দিয়ে ও’কিফের যে বল দড়ির ওপর দিয়ে সীমানা পার করলেন। সে এমনই ছক্কা, বলই খুঁজে পাওয়া গেল না কিছুক্ষণ! হ্যাজলউডের বলে স্কুপ করে যে বাউন্ডারিটি আদায় করলেন, সেটিও কি কোনো অংশে কম! ব্যক্তিগত রানের চাকা তো ঘুরছিল, সঙ্গে দলেরও। রেয়ারডনের সঙ্গে পঞ্চম উইকেটে সর্বোচ্চ ৮০ রানের জুটি গড়লেন। হ্যাজলউডকে মিড উইকেটে উড়িয়ে মারতে গিয়ে বাউন্ডারির একদম কাছেই ধরা পড়লেন ওকেফের হাতে। থামল সাকিব-ঝড়। কিন্তু ততক্ষণে অ্যাডিলেড ওভাল দেখে ফেলেছে ৪৬ রানের মুগ্ধতাজাগানিয়া এক ইনিংস! সেই ইনিংসে তাঁর প্রিয় স্লগ সুইপ ছিল, ছিল ডিপ মিডউইকেটের ওপর দিয়ে হাঁকানো দুটো ছক্কা, এমনকি স্কুপও।

ম্যাচের শুরুতেই জার্সিতে নিজের নামের বানান ভুল দেখে মনে কিছুটা দুঃখ হতে পারে সাকিবের। তবে মাঠে নেমেই যে ইনিংসটি খেললেন, তাতে ওই সামান্য দুঃখটুকু ঘুঁচে যেতে পারে মুহূর্তেই। সাকিব এ পর্যন্ত তিনটি ওয়ানডে খেলেছেন অস্ট্রেলিয়ায়। ২০০৮ সালের সেই সফরে সবগুলো ম্যাচই হয়েছে ডারউইনে। অ্যাডিলেডেই এই প্রথম খেলার অভিজ্ঞতা হলো তাঁর। প্রথম বাংলাদেশি হিসেবেও অস্ট্রেলয়ার ঘরোয়া প্রতিযোগিতায় দারুণ সূচনা হলো।

মূলত সাকিবের ৪৬ ও নাথান রেয়ারডনের ৪৩ রানের ওপর ভর করেই অ্যাডিলেড স্ট্রাইকার্সের সংগ্রহ ২০ ওভারে ৭ উইকেটে ১৪৯। এখন সাকিবের বল হাতে জাদু দেখানোর পালা।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email