শনিবার ১৭ নভেম্বর ২০১৮ ৩রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

সৌদির উদ্দেশে ঢাকা ছেড়েছে হজের প্রথম ফ্লাইট

সৌদির উদ্দেশে ঢাকা ছেড়েছে হজের প্রথম ফ্লাইট। ৪১৯ জন হজযাত্রী নিয়ে এ বছরের প্রথম হজ ফ্লাইট বিজি-১০১১ সৌদি আরবের উদ্দেশে যাত্রা করেছে।

শনিবার সকাল ৮ টা ৫৫ মিনিটে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী এ কে এম শাহজাহান কামাল ও ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান বিমানবন্দরে ফ্লাইট উদ্বোধন করে দোয়া ও মোনাজাতের মাধ্যমে হজযাত্রীদের বিদায় জানান।

এ সময় বিমান পরিচালনা পর্ষদ চেয়ারম্যান ইনামুল বারী, ব্যবস্থাপনা পরিচালক এএম মোসাদ্দিক আহমেদ, পরিচালক প্রশাসন মোমিনুল ইসলাম, ফ্লাইট অপারেশন পরিচালক ফারহাত হাসান জামিল, গ্রাহকসেবা পরিচালক আলি আহসান বাবু, মার্কেটিং অ্যান্ড সেলস পরিচালক আশরাফুল আলমসহ অন্যান্য কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া শনিবার বিমান বাংলাদেশের হজ ফ্লাইট বিজি-৩০১১ সকাল ১১টা ৫৫ মিনিটে, বিজি-৫০১১ বিকেল ৩টা ৫৫ মিনিটে এবং শিডিউল ফ্লাইট বিজি-০০৩৫ রাত ৮টা ৪৫ মিনিটে জেদ্দার উদ্দেশে ঢাকা ছাড়বে। নির্বিঘ্নে হজ ফ্লাইট পরিচালনা করে শাহজালাল বিমান বন্দরের পাশাপাশি চট্টগ্রাম এবং সিলেট থেকেও এ বছর যথাক্রমে ৯টি ও ৩টি হজ ফ্লাইট পরিচালিত হবে।

এ বছর হজ ফ্লাইট ও শিডিউল ফ্লাইটে মোট ৬৩ হাজার ৫৯৯ (ব্যালটি ও নন-ব্যালটি) জন ধর্মপ্রাণ মুসলমান হজ পালনে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সে জেদ্দা যাবেন। এসব হজযাত্রীর ঢাকা-জেদ্দা-ঢাকা রুটে পরিবহনের জন্য বিমানের ৪টি নিজস্ব বোয়িং ৭৭৭-৩০০ইআর উড়োজাহাজ প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

এদিকে আগামী ২৫ জুলাই থেকে ১০ আগস্ট পর্যন্ত সময়ের বিভিন্ন ফ্লাইটে এখনও প্রায় ১২ হাজার হজ টিকিট অবিক্রিত রয়েছে। এবিষয়ে বিমানের পক্ষ থেকে সকল হজ এজেন্সিকে হজযাত্রীদের দ্রুত টিকেট সংগ্রহের অনুরোধ করা হয়েছে।

এবার বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৫২৮টি হজ এজেন্সি হজের কার্যক্রম পরিচালন করছে। যাত্রীদের বহনের জন্য আগেই ঠিক করে রাখা হয়েছে বাংলাদেশ বিমান ও সৌদি এয়ারলাইনস। এর মধ্যে বিমান বাংলাদেশ ১৮৭টি ফ্লাইটে ৬৪ হাজার ৯৬৭ জন এবং সৌদি এয়ারলাইনসের ১৮৮টি ফ্লাইটে ৬১ হাজার ৮৩১ জন যাত্রী পরিবহন করবে। হজের শেষ ফ্লাইট ঢাকা থেকে ছেড়ে যাবে ১৫ আগস্ট। আর হজ পালন শেষে ২৭ আগস্ট প্রথম ফিরতি ফ্লাইট জেদ্দা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ঢাকার উদ্দেশে যাত্রা করবে।