রবিবার ৯ অগাস্ট ২০২০ ২৫শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সৈয়দপুরের ঢেলাপীর হাটে অসুস্থ গরু জবাই করে মাংস বিক্রির সময় ২ কসাই আটক

মোঃ জাকির হোসেন, সৈয়দপুর (নীলফামারী) সংবাদদাতা ॥ নীলফামারীর সৈয়দপুর উত্তরা আবাসন সংলগ্ন বোতলাগাড়ী ইউনিয়নের ঢেলাপীর হাটে অসুস্থ গরু জবাই করে মাংস বিক্রির সময় ২ কসাইকে আটক করে ভ্রাম্যমান আদালতে ২০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। সে সাথে জব্দকৃত ৮৪ কেজি মাংস মাটিতে পুুতে ফেলে নষ্ট করা হয়েছে। ৭ জুলাই মঙ্গলবার সকাল ১০ টার দিকে এ ঘটনা ঘটেছে।্ এতে আটক দুুই কসাই হলো উত্তরা আবাসনের একরামুুলের ছেলে এনামুল (৩৫) ও সাবের আলীর ছেলে শামীম (২৯)।
জানা যায়, উল্øেখিত ২ কসাই উপজেলার বোতলাগাড়ী ইউনিয়নের সোনাখুলী কুঠিপাড়ার আজিজের কাছ থেকে একটি অসুস্থ গরু কিনে পিকআপে করে আবাসন এলাকায় এনে গোপনে জবাই করে। আজিজের গরুটি ২ দিন আগে বাচ্চা প্রসব করতে গিয়ে বাচ্চাদানী জরায়ু থেকে বেড়িয়ে আসে। এতে সংক্রমিত হয়ে গরুটি গুরুত্বরভাবে অসুস্থ হয়ে পড়ে। এমনকি গরুটি চলাচলও করতে পারছিলনা। এমতাবস্থায় যে কোন সময় গরুটি মারা যেতে পারে এ আশংকায় বিক্রি করে দেয়।
সেই গরুটিকে জবাই করেই মাংস ঢেলাপীর হাটে বিক্রি করা হচ্ছে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সৈয়দপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভ’ূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্র্রেট মোঃ রমিজ আলম ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ২ কসাইকে জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার সত্যতা পায়। এতে কসাইদের প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা করে ২০ হাজার টাকা জরিমানা এবং গরুর মাংস জব্দ করে। পরে জব্দকৃত মাংস মাটিতে পুতে ফেলে নষ্ট করা হয়।
উল্লেখ্য, ঢেলাপীর হাটে প্রায়ই অসুস্থ ও মরা গরু জবাই করে মাংস বিক্রি করা হয়। মাঝে মাঝে প্রশাসন অভিযান চালালেও আবারও একইভাবে চলতে থাকে। এসব ব্যবসায়ীর জরিমানা হলেও স্থায়ী কোন শাস্তি না হওয়ায় তারা আবারও চালিয়ে যায় তাদের অবৈধ ব্যবসা। সচেতন মহলের অভিযোগ কোন খুটির জোড়ে তারা এভাবে অবৈধ ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email