রবিবার ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯ ৩০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

সৈয়দপুরে দুটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মাল্টিমিডিয়া ক্লাসের সরঞ্জাম চুরি

মোঃ জাকির হোসেন, সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি ॥ নীলফামারীর সৈয়দপুরে দুটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মাল্টিমিডিয়া ক্লাশের জন্য ব্যবহৃত সরঞ্জাম চুরি হয়েছে। ২৯ নভেম্বর শুক্রবার দিবাগত রাতে সংঘটিত চুরির ঘটনায় প্রায় ২ লাখ টাকার মালামাল খোয়া গেছে। প্রতিষ্ঠান দুটি হলো সৈয়দপুর আসমতিয়া দাখিল মাদ্রাসা ও কয়া ২ নং সরকারী  প্রাথমিক বিদ্যালয়। এর একটিতে দরজার তালা কেটে এবং অন্যটিতে জানালার গ্রীল কেটে চুরি করা হয়েছে। সংবাদ পেয়ে সৈয়দপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

আসমতিয়া মাদ্রাসার সুপার কাজী আনোয়ারুল ইসলাম শাহ জানান, শুক্রবার দিবাগত আনুমানিক সন্ধা ৭ টার দিকে তার প্রতিষ্ঠানের নৈশ প্রহরীর অবর্তমানে চোরেরা অফিস কক্ষের দরজার তালা কেটে প্রবেশ করে। পরে অফিসের প্রায় সবগুলো ফাইল কেবিনেট ও আলমিরার তালা ভেঙ্গে ফেলে। এসময় তারা অফিসে রক্ষিত মাল্টিমিডিয়া ক্লাসের ১ টি প্রজেক্টর, সাউন্ড সিস্টেম এর ৭টি বক্স, ৮টি ইলেকট্রিক নিক্তিসহ প্রায় ১ লাখ ২০ হাজার টাকার বিভিন্ন সরজ্ঞাম চুমি করে সটকে পড়ে। পরে নৈশ প্রহরী রফিকুল ইসলাম মাদ্রাসায় এসে চুরির বিষয়টি নিশ্চিত হয় এবং খবর পেয়ে মাদ্রাসার শিক্ষক  ও পুলিশ ঘটনাস্থলে আসে। পুলিশ প্রাথমিক তদন্ত করেছে।

এদিকে মাত্র ২শ’ গজ দূরে কয়া ২ নং সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ওই রাতেই জানালার গ্রিল কেটে অফিস কক্ষে প্রবেশ করে একটি ল্যাবটপ, সাউন্ড সিস্টেম ও নগদ ২ হাজার ৩ শ’ টাকা চুরি করেছে চোরের দল বলে জানান প্রতিষ্ঠানটির প্রধান শিক্ষক আব্দুল কাদের। তিনি বলেন, রাতে কখন চুরি হয়েছে তা জানিনা। দপ্তরি কাম নৈশ প্রহরী জুয়েল রানা পাশের কক্ষেই থাকেন। সকালে স্কুলে আসার পর চুরির বিষয়টি টের পাই। পরে থানায় জানালে পুলিশ এসে প্রাথমিক তদন্ত করেছে। এ ব্যাপারে লিখিত অভিযোগ দেওয়ার প্রস্তুতি চলছে।

এলাকাবাসীর অভিযোগ কয়া ২ নং সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরি কাম নৈশ প্রহরী জুয়েল রানা নিয়মিত রাতে প্রতিষ্ঠানে না থেকে নিজের বাড়িতে ঘুমান। এ কারণে চুরির ঘটনাটি ঘটেছে। একইভাবে আসমতিয়া মাদ্রাসার নৈশ প্রহরী রফিকুল ইসলাম প্রায় প্রতিদিনই সন্ধার সময় প্রতিষ্ঠান থেকে বের হয়ে ২/৩ ঘন্টা বাইরে অবস্থান করেন। এ সুযোগেই চোরেরা চুরির ঘটনা ঘটিয়েছে বলে শিক্ষকদের অভিযোগ।

এ ব্যাপারে জুয়েল রানা জানান, আমি গত রাতে পাশের রুমেই ছিলাম। কখন বা কিভাবে চুরি হয়েছে তা আমি জানিনা। তবে গ্যাস কাটার দিয়ে জানালার গ্রীল কাটার কারণে কোন শব্দও পাইনি।

সৈয়দপুর থানার অফিসার ইনচার্জ  মোঃ শাহজাহান জানান, চুরির বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেলে চুরির সাথে জড়িতদের সনাক্ত পূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।