সোমবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ ৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সৈয়দপুরে ন্যুনতম মজুরিতে মহিলা শ্রমিক দিয়ে চলছে ধান কাটা ও মাড়াইয়ের কাজ

মোঃ জাকির হোসেন, সৈয়দপুর (নীলফামারী) সংবাদদাতা ॥ নীলফামারীর সৈয়দপুরে চলছে চলতি মৌসুমের ধান কাটা মাড়াইয়ের কাজ। বোরো ধানের ভরা মৌসুমে সৈয়দপুর থেকে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে পুরুষ কৃষি শ্রমিক সরকারীভাবে প্রেরণের ফলে শ্রমিক সংকট দেখা দিয়েছে। এমতাবস্থায় ক্ষেত থেকে ধান কাটা থেকে শুরু করে ঝাড়া, সিদ্ধ করা, শুকানোর কাজে পুরুষদের পরিবর্তে মহিলা শ্রমিকদের নিয়োজিত হতে দেখা গেছে। কিন্তু করোনা পরিস্থিতির কারণে কর্মহীন মানুষের মাঝে আর্থিক দূরাবস্থা সৃষ্টির সুযোগ নিয়ে এই মহিলা শ্রমিকদের খুব অল্প মজুরিতে কাজ করাচ্ছে ধানচাষী ও গৃহস্থরা।

সরেজমিনে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, সর্বত্র ধান কাটা, মাড়াই, সিদ্ধ ও শুকানোর কাজ করছে নারী শ্রমিক। সৈয়দপুর পৌর এলাকার ১০ নং ওয়ার্ডের পশ্চিম পাটোয়ারী পাড়ায় গিয়ে কথা হয় ধান সিদ্ধ করার কাজে ব্যস্ত নারী শ্রমিক শীলা রানী, ভারতী রানীর সাথে। তাদের বাড়ি পাশ্ববর্তী বাঙ্গালীপুর ইউনিয়নের বুচারীপাড়ায়। কাজের প্রয়োজনে এখানে এসেছেন তারা।

তারা জানান, করোনা পরিস্থিতির কারণে কর্মহীন হয়ে পড়ায় এবং আর্থিক সমস্যা দেখা দেয়ায় বাধ্য হয়ে স্বল্প মজুরিতেই কাজ করতে বাধ্য হচ্ছে তারা। প্রতিদিন প্রায় ২০ মন ধান সিদ্ধ করে সারাদিন শেষে মাত্র ৩শ’ টাকা মজুরি পাওয়া যায়। যা দিয়ে কোন রকমে দিন গুজরান করছে তারা। পুরুষ শ্রমিকরা এলাকার বাইরে গিয়ে কাজ করার সুযোগ পাইলেও তারা বঞ্চিত। তাই ধান সিদ্ধ করার পাশাপাশি কাটা মাড়াইয়ের কাজও করছেন অনেক মহিলা। করোনায় সরকারীভাবে বিভিন্ন ত্রাণ বা সহযোগিতা প্রদানের কথা জানলেও তারা এ পর্যন্ত কোন কিছুই পায়নি বলেও অভিযোগ করেন তারা। মেম্বার চেয়ারম্যানরা মুখ দেখে দেখে ত্রাণ দিচ্ছে। তারা ভোটের রাজনীতি করছেন। যারা ভোট দিবে বলে ওয়াদা করছেন তাদেরকে ত্রাণ, অর্থ সহায়তাসহ সব ধরণের সুযোগ সুবিধা দিচ্ছে। যে কারণে অনেক স্বচ্ছল পরিবারের লোকজনও সরকারী সহায়তা পেলেও প্রকৃত দরিদ্র ও কর্মহীন অসহায় মানুষ বঞ্চিত হয়েছে।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email