রবিবার ৫ জুলাই ২০২০ ২০শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সৈয়দপুরে বখাটের ক্ষুরের আঘাতে নিহত মোটর শ্রমিকের লাশ নিয়ে মানববন্ধন

জাকির হোসেন, সৈয়দপুর  (নীলফামারী) সংবাদদাতাঃ নীলফামারীর সৈয়দপুরে জুয়া খেলায় বাধা দেয়া নিয়ে কথা কাটাকাটির জের ধরে বখাটের উপুর্যুপরি ক্ষুরের আঘাতে গুরুতরভাবে আহত মোটর শ্রমিক অবশেষে মারা গেছে।

দীর্ঘ ৯ দিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে ৮ জুন সোমবার ভোর ৫টায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেছে। মৃত মোটর শ্রমিকের নাম আলমগীর হোসেন (৪০)।

৮ জুন বিকাল ৪টায় রংপুর থেকে লাশ আসার পর শহরের বঙ্গবন্ধু চত্বরে (পাঁচ মাথা মোড়) এলাকার প্রায় সহস্রাধিক মানুষ ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন করেছে। পরে উত্তেজিত জনতা ক্ষুর বাবুয়ার বাড়ি ভাঙ্চুর করে। মানব বন্ধনে বক্তব্য রাখেন নীলফামারী জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের অন্তর্ভুক্ত কার-পিকআপ উপকমিটির সাধারণ সম্পাদক মোঃ মানিক মিয়া ও সৈয়দপুর পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি আইয়ুব আলী।

জানা যায়, গত ঈদুল ফিতরের পঞ্চম দিন সৈয়দপুর পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ড হাতিখানায় রেললাইন এর ধারে বিসমিল্লাহ ফল ভান্ডার এর সামনে পুলপাড়ে জুয়া খেলায় বাধা দেয়া কথা কাটাকাটির জেরে খুর বাবু তার খুর দিয়ে তিন সন্তানের জনক নীলফামারী জেলা মটর শ্রমিক ইউনিয়ন (২২০)  এর সদস্য আলমগীর এর পেটে খুর মারে। এতে আলমগীর গুরুতরভাবে জখম হলে লোকজন তাকে উদ্ধার করে ১০০ শয্যা হাসপাতাল ভর্তি করে। কিন্তু তার অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে দ্রুত রংপুর মেডিকেলে কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে  দীর্ঘ এক সপ্তাহ ধরে চিকিৎসাধীন অবস্থায়  ৮ জুন সোমবার ভোর ৫টায় মৃত্যু বরন করেন। ইন্না-লিল্লাহ ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।   এ ঘটনায় সৈয়দপুর রেলওয়ে থানায় মামলা হলেও খুনী বাবুয়া সহ তার ভাই ও সহযোগীরা বীর দাপটে ঘুড়ে বেড়াছে। এমতাবস্থায় আলমগীর মারা যাওয়ায় এলাকাবাসীর মাঝে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। শোকের ছায়া নেমে আসার পাশাপাশি খুনি বাবুয়া ও তার সহযোগীদের গ্রেফতারের দাবী জোড়ালো হয়েছে।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email