বৃহস্পতিবার ২৪ জানুয়ারী ২০১৯ ১১ই মাঘ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

সৈয়দপুরে ৪ বছরের শিশুকে যৌননিপীড়নের অভিযোগে ৪ সন্তানের জনক আটক

জাকির হোসেন, সৈয়দপুর (নীলফামারী) সংবাদদাতা ॥ নীলফামারীর সৈয়দপুরে ৪ বছরের শিশুকে যৌননিপীড়নের অভিযোগে ৪ সন্তানের জনককে আটক করেছে পুলিশ। ৪ জানুয়ারী (শুক্রবার) সৈয়দপুর উপজেলার খাতামধুপুর ইউনিয়নের মুশরত ধুলিয়া মালিপাড়া থেকে তাকে আটক করা হয়। আটক মোহাম্মদ মিঠু (৩৫) ওই গ্রামের মোহাম্মদ আলীর পুত্র।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার সকাল ৯টার দিকে বাড়ীর পাশে গ্রামের ৪ বছরের শিশু কন্যাকে নিজ বাড়িতে ডেকে নিয়ে যৌননিপীড়ন করে। পরে শিশুটি বাড়িতে গিয়ে বাবা-মাকে ঘটনাটি খুলে বলে। প্রথমে মানসম্মানের ভয়ে শিশুটির পরিবার বিষয়টি চেপে যায়। কিন্তু শিশুটি অসুস্থ্যবোধ করলে বিষয়টি জানাজানি হয় এবং এলাকায় এ নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়। বিষয়টি ৯ নং ওয়ার্ড মেম্বার রশিদুল ইসলামকে জানানো হলেও তিনি সুরাহার কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় শুক্রবার বেলা ৩ টার দিকে মিঠুর পরিবার ও শিশুটির পরিবারের মধ্যে এনিয়ে বাক-বিতন্ডা শুরু হয়। এক পর্যায়ে মিঠুর পক্ষের লোকজন শিশুটির পরিবারের লোকজনের উপর চড়াও হলে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। খবর পেয়ে ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো: জুয়েল চৌধুরী তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে সুরাহার চেষ্টা করে। এসময় শিশুটির পরিবারের পক্ষ থেকে এলাকার স্কুল শিক্ষক গণেশ চন্দ্র রায়কে বিষয়টি মিমাংসার ভাড় দেয়। চেয়ারম্যান ও গণেশসহ গন্যমান্য ব্যক্তিরা সিদ্ধান্ত নেয় মিঠুর পরিবারের ৭ শতক জমি নাম মাত্র দামে শিশুটির পরিবার কিনে নিবে এবং এলাকা থেকে মিঠুর পরিবার অন্যত্র চলে যাবে। উপস্থিত লোকজনের সম্মতিতে মিঠুর পরিবার এ সিদ্ধান্তে সম্মত হয়। কিন্ত এসময় হঠাৎ হিন্দু কল্যাণ সমিতির নীলফামারী জেলা কমিটির নেতৃবৃন্দ এসে বাধা প্রদান করে।

এদিকে আলোচনা চলার মধ্যেই সৈয়দপুর থানায় উপস্থিত হয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করে। অভিযোগ পেয়ে রাত ৯টার দিকে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অশোক কুমার পাল সঙ্গীয় ফোর্সসহ মিমাংসাস্থলে পৌছে চেয়ারম্যানের উপস্থিতিতে মিঠুকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অশোক কুমার পাল জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটক মিঠু ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে এবং শিশুটির মা বাদী হয়ে অভিযোগ দায়ের করেছেন।