বৃহস্পতিবার ১৪ নভেম্বর ২০১৯ ৩০শে কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

হংকং বিক্ষোভকারীদের পরবর্তী লক্ষ্য চীনা রেলস্টেশন

হংকংয়ে সরকারবিরোধী বিক্ষোভকারীরা রবিবার বিকেলে বিতর্কিত রেলস্টেশনের বাইরে সমাবেশের পরিকল্পনা করেছে। এই স্টেশন থেকে চীনের মূল ভূখন্ডে দ্রুত গতির ট্রেন ছেড়ে যায়। বেইজিংপন্থি নেতাদের চাপে ফেলতেই তারা এ পরিকল্পনা করেছে। গত সোমবার পার্লামেন্টে হামলা ভাঙচুরের পর এ সমাবেশের পরিকল্পনা বিক্ষোভকারীদের বড়ো ধরনের প্রথম পদক্ষেপ।

প্রত্যার্পন বিলের প্রতিবাদে গত প্রায় এক মাস ধরে হংকংয়ে কখনো শান্ত কখনো সহিংস বিক্ষোভ চলছে। জনমতের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে কর্তৃপক্ষ বিলটি পাস করা থেকে বিরত থাকলেও গণতান্ত্রিক সংষ্কারসহ বিলটি বাতিল এবং পুলিশের টিয়ারগ্যাস, রাবার বুলেট নিক্ষেপের নিরপেক্ষ তদন্ত, গ্রেফতারকৃতদের ক্ষমা ও নগরীর অনির্বাচিত নেতা ক্যারি ল্যামের পদত্যাগের দাবিতে বিক্ষোভকারীরা তাদের আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে।

এদিকে চীন ল্যামকে পূর্ণ সমর্থন দিয়ে যাচ্ছে। একই সঙ্গে বেইজিং পার্লামেন্টে হামলা ও অন্যান্য সহিংসতায় জড়িতদের ধরতে পুলিশের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।

সিম শা সুই জেলায় বিকেল ৩টায় এ সমাবেশের ডাক দেয়া হয়েছে। জেলাটি চীনা পর্যটকদের কাছে খুবই জনপ্রিয়। তাদের দৃষ্টি আকর্ষণের লক্ষ্যেই তারা এ জেলায় সমাবেশটির ডাক দিয়েছে। কারণ চীনের অভ্যন্তরে হংকং বিক্ষোভকে সহিংসতা ও বিদেশী অর্থায়নের চক্রান্ত বলে সংবাদ প্রচার করা হচ্ছে। তাই বিক্ষোভকারীরা আশা করছেন এ সমাবেশের মধ্যদিয়ে মূল বার্তা চীনাদের কাছে পৌঁছাবে।

সমাবেশ শেষে মিছিল করে বিক্ষোভকারীরা পশ্চিম নোলুনের দিকে এগিয়ে যাবে। যেখানে শত শত ডলার ব্যয়ে চীনের মূল ভূখন্ডে দ্রুত গতির ট্রেন যাওয়ার জন্যে সম্প্রতি নতুন রেলস্টেশন নির্মাণ করা হয়েছে।