সোমবার ২২ অক্টোবর ২০১৮ ৭ই কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

হাকিমপুরে বিজিবি কর্তৃক ৩ যুবককে মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে ১ যুবককে আটকের অভিযোগ

রমেন বসাক ॥ দিনাজপুরের হাকিমপুর সীমান্তে বৃহস্পতিবার বিকেলে বিজিবি সদস্যরা ২ যুবককে মাদক চোরাচালানীর মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে ১ যুবককে আটকের অভিযোগ উঠেছে। ২০ বিজিবি জয়পুরহাট ব্যাটালিয়ান আওতাধীন মংলা বিশেষ ফাঁড়ির নায়েক মাসতুল হক ও ফাঁড়ির কমান্ডার নায়েক সুবেদার মহাসীন আলীর বিরুদ্ধে এ অভিযোগ উঠেছে।

জানা যায়, নায়েক মাসতুল হকের নেতৃত্বে একদল জওয়ান উপজেলার ঘাসুরিয়া গ্রামের মমতাজ উদ্দিনের ছেলে রনি (২৫) কে ঘাসুরিয়া গ্রাম থেকে কোন প্রকার অবৈধ পণ্য ছাড়াই খালি হাতে ডেকে মংলা বিজিবি ফাঁড়িতে নিয়ে যায়। এরপর তার নিকট ৬০ পিচ ভারতীয় ‘সাইনোপেন’ নামক নেশাজাতীয় ইনজেকশন, ২২০ রুপি ও ১ পুরিয়া গাঁজা উদ্ধার করা হয়েছে বলে নায়েক সুবেদার মোহাসীন আলী জানান। তিনি আরো জানান তাকে আটকের স্থলে সাক্ষী একই গ্রামের সেকেন্দার আলী ও আলম হোসেনের উপস্থিতিতে এর জব্দ তালিকা প্রস্তুত করা হয়েছে। তবে সাক্ষী আলম হোসেনের নিকট জানতে চাইলে তিনি এ প্রতিবেদককে বলেন এসময় আমি সেখানে উপস্থিত ছিলাম না। তবে পরে আমাকে এক বিজিবি সদস্য ক্যাম্পে ডেকে এনে সেই সিজার লিস্টে (জব্দ তালিকা) স্বাক্ষর নিয়েছে। আর আলম হোসেনের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার উপস্থিতিতে রনির নিকট তারা কোন অবৈধ পণ্য জব্দ করেনি। এরপর একই গ্রামের অপর দু’যুবককে পলাতক আসামী দেখিয়ে হাকিমপুর থানায় মামলা দায়ের পূর্বক রনিকে থানায় সোর্পদ করা হয়েছে। এব্যাপারে ২০ বিজিবি ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লে. কর্ণেল রাশেদ মোহাম্মদ আনিসুল হকের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, তাদেরকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর বিষয়টি সঠিক নয় তবে বিষয়টি যদি সত্য হয় সেক্ষেত্রে তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।