রবিবার ৯ অগাস্ট ২০২০ ২৫শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

হিলিতে অনলাইনে কোরবানি পশুর হাট চালু

মোঃ আব্দুল আজিজ, হিলি প্রতিনিধি : কোরবানি ঈদকে সামনে রেখে দিনাজপুরের হাকিমপুর(হিলি)উপজেলায় অনলাইনে কোরবানি পশু বেচা-কেনা শুরু হয়েছে। করোনা মহামারী সময়ে এই বছর সীমান্তবর্তী এ উপজেলায় অনলাইনে কোরবানির পশুর হাট চালু করেছে হাকিমপুর (হিলি) উপজেলা প্রাণী সম্পদ অফিস। তাই এবার হাটে না গিয়ে নিজের স্বাস্থ্যবিধি মেনেই ঘর থেকে বসে অনলাইনে কোরবানির পশু কেনাকাটা করা যাবে।

হাকিমপুর (হিলি) উপজেলার আলীহাট ইউনিয়নের খামারী আবু রাইহান ও আরমান জানান, গত বছর আমরা কোরবানি পশু বিক্রি করে লাভবান হয়েছিলাম। এবার সেই লাভের আশায় বেশি পরিমাণ গরু, ছাগল পালন করেছি।তবে করোনা মহামারীতে এসব পশু বিক্রি নিয়ে আমরা দুশ্চিন্তায় আছি, তবে উপজেলা প্রাণী সম্পদ অফিসের উদ্দ্যেগে অনলাইন কোরবানি পশুর হাট করায় কিছুটা আমাদের স্বস্তি ফিরেছে। আমাদের বিক্রয় করা পশুর ছবি, বিক্রেতার নাম, ঠিকানা, মোবাইল নাম্বার দিলে ক্রেতারা বাড়ি থেকে এসে নিয়ে যাচ্ছে।এতে করে আমাদের অনেক সুবিধা হচ্ছে।যদি এই কার্যক্রম চলমান থাকে এবং আমরা সবগুলো পশু এভাবে বিক্রি করতে পারি তাহলে লাভবান হবো।

হাকিমপুর (হিলি) উপজেলা ভেটানারী সার্জন ডা. রতন কুমার ঘোষ জানান, আমার খামারীদের জন্য কোরবানি ঈদকে সামনে রেখে যে অনলাইন হাট চালু করেছি সেটাতে ভালো সাড়া পাচ্ছি। কেউ যাতে আর্থিক লেনদেন কিংবা প্রতারিত না হয় সেদিকে কঠোর নজরদাড়ি রাখা হয়েছে।এর ফলে খামারীদের পশু বিক্রি করতে খরচ কম লাগবে এবং তারা কিছুটা হলেও লাভবান হবেন।

হাকিমপুর (হিলি) উপজেলার প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা আব্দুস সামাদ জানান, এই উপজেলায় এবার কোরবানি ঈদকে সামনে রেখে ৬ হাজার কোরবানি পশুর চাহিদা থাকলেও তার বিপরীতে এখানকার খামারীরা ৯ হাজারের বেশি পশু লালন-পালন করেছে। প্রাণী সম্পদ অফিসের পরার্মশে এই পশু গুলো সর্ম্পূণ প্রাকৃতিকভাবে লালন-পালন করছেন এখানকার খামারীরা। তবে খামারীরা যাতে এই করোনা মহামারীর মধ্যে স্বাস্থ্যঝুঁকি নিয়ে কোরবানি পশুর হাটে না যেতে হয় সেদিকে লক্ষ রেখে আমরা প্রাণী সম্পদ অফিসের উদ্দ্যেগে অনলাইন কোরবানি পশুর হাট কার্যক্রম শুরু করেছি। যাতে করে ক্রেতা-বিক্রেতা ঘরে বসে স্বাস্থ্যবিধি মেনে তাদের পছন্দের পশুটি ক্রয়-বিক্রয় করতে পারে।

তিনি আরও জানান, যেহেতু কোরবানি পশুর হাটে ব্যাপক মানুষ ও গরুর সমাগম ঘটে। সেই লক্ষে “অনলাইন কোরবানি পশুর হাট হাকিমপুর” নামে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে একটি আইডি খোলা হয়েছে। যে আইডির সাথে উপজেলার বিভিন্ন খামারী, মিডিয়া ব্যক্তিত্বসহ নানা শ্রেণী পেশার মানুষ যুক্ত আছেন। সেখানে খামারিদের বিক্রয়যোগ্য পশুর ছবি, সম্ভাব্য ওজন, বিক্রেতার নাম-ঠিকানা,মোবাইল নাম্বারসহ পোস্ট করা হচ্ছে। সেখান থেকে ক্রেতারা তাদের পছন্দমতো পশু ক্রয় করতে পারবেন। এতে করে শুধু মানুষের মাঝে নয় পশুদের মাঝে বিভিন্ন ধরনের ভাইরাস হতে পারে।সেই কারনে সাধারন মানুষ ও পশুকে সুস্থ্য রেখে ক্রয়-বিক্রয়ের জন্য এই উদ্দ্যেগ নিয়েছি।এতে আমরা অনেক সারা পাচ্ছি।

হাকিমপুর (হিলি) পৌর মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত জানান, স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের দেওয়া যেসব স্বাস্থ্যবিধি রয়েছে সেই সব বিষয়ে ইতিমধ্যে হাটের ইজারাদাড়দের সাথে কথা বলেছি। পশুর হাট লাগানোর জন্য সব ধরনের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। অনলাইনে পশু ক্রয় বিক্রয় বিষয়ে তিনি সাধুবাদ জানিয়ে বলেন যে, যদি আমরা অনলাইনে পশু ক্রয় বিক্রয় করি তবে স্বাস্থ্যবিধিও মানা হবে।

হাকিমপুর (হিলি) উপজেলা চেয়ারম্যান জানান, প্রতিবছর হাকিমপুর উপজেলাতে কোরবানির পশু ক্রয়ের জন্য হাট বসানো হয়ে থাকে। এবছরও স্বাস্থ্যবিধি মেনে পশুর হাট বসানো হবে। ইতিমধ্যে প্রাণি সম্পদ অফিসের মাধ্যমে অনলাইনে কোরবানি পশু ক্রয় বিক্রয় শুরু হয়েছে। এটি একটি ভাল উদ্দ্যোগ। কেননা আমরা অনলাইনের মাধ্যমে দেশ বিদেশ থেকে বিভিন্ন জিনিস ক্রয় বিক্রয় করে থাকি। সেই লক্ষ্যে পশু ক্রয় বিক্রয় উদ্দ্যোগকে তিনি সাধুবাদ জানিয়েছেন। হাকিমপুর (হিলি) উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুর রাফিউল আলম জানান, উপজেলা প্রাণী সম্পদ অফিসের করোনা কান্তি সময়ে অনেক ভালো একটি উদ্দ্যেগ নিয়েছে।এটি আমাদের উপজেলার প্রান্তিক থেকে শুরু করে সব ধরনের খামারীদের উপকারে আসবে।যারা কোরবানির পশু ক্রয় করতে ইচ্ছুক প্রাণি সম্পদ অফিসের ফেজবুক পেজ থেকে নাম্বার সংগ্রহ করে পশুর মালিকদের নিকট থেকে দাম করে পশু ক্রয় করতে পারবেন।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email