মঙ্গলবার ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮ ৪ঠা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

১২৮ বছরের পুরনো রেকর্ডে নাম লেখাল বাংলাদেশ

উইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজ নির্ধারণী দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টের প্রথম ইনিংসে ৫০৮ রানের পাহাড়সম পুঁজির পর বল হাতে রেকর্ড বইয়ে নাম তুললো বাংলাদেশ। ১২৮ বছর পর নতুন করে ক্রিকেট ইতিহাসের এমন এক রেকর্ডে নিজেদের নাম লেখাল বাংলাদেশ, যার দেখা এখনো পর্যন্ত পেয়েছে মাত্র তিনটি দেশ!

৫০৮ রানে ইনিংস শেষ করার পর বল হাতে ম্যাচের প্রথম ওভারের শেষ বলেই দলকে সাফল্য এনে দেন দলনেতা সাকিব আল হাসান। প্রতিপক্ষ শিবিরের কাপ্তান ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েটকে সরাসরি বোল্ড করে এ সাফল্যর মুখ দেখেন তিনি।

এরপর সাকিবের সাথে উইকেট প্রাপ্তিতে যোগ দেন মেহেদী হাসান মিরাজও। কাইরন পাওয়েলকে ব্যক্তিগত ৪ রানে ফেরান তিনি। তাকেও বোল্ড করে সাজঘরের পথ ধরান তিনি। মিরাজের পর আবারও দলকে ব্রেক-থ্রু এনে দেন সাকিব। এবার ৭ রান করা অ্যামব্রিসকে বোল্ড করেন তিনি।

অধিনায়কের দ্বিতীয় সাফল্যের পর আরও দুবার উইকেট শিকারের উদযাপনে মাতেন মিরাজ। রস্টন চেজের পর শাই হোপের উইকেট তুলে নেন তিনি। আশ্চর্যভাবে এ উইকেট দুটিও আসে ব্যাটসম্যানদ্বয়কে সরাসরি বোল্ড করার মাধ্যমে। দলীয় ২৯ রানে যখন সফরকারীদের নেই প্রথম সারির পাঁচ ব্যাটসম্যান, ঠিক তখনই ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি করে রেকর্ড বইয়ে নিজেদের নাম ওঠায় বাংলাদেশ।

আর এর মধ্য দিয়ে ১৮৯০ সালের পর প্রথমবারের মতো কোনো দলের ব্যাটিং লাইন-আপের প্রথম পাঁচ ব্যাটসম্যানকে বোল্ড আউট করে সাজঘরের ফেরানোর কীর্তি গড়ে বাংলাদেশ।

আজকের ম্যাচের আগে ক্রিকেট ইতিহাসে এরকম ঘটনা এর আগে ঘটেছিল মাত্র দুবার। ১৮৭৯ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে মেলবোর্ন টেস্টে প্রথমবারের মতো এমন কীর্তি গড়ে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল। তাদের এমন অভিনব রেকর্ডের পর ১৮৯০ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে এ অর্জনের দেখা পায় ইংলিশরা।

এরপর কেটে গেছে অনেকগুলো বছর, অনুষ্ঠিত হয়েছে অসংখ্য টেস্ট ম্যাচ। তবে কেউই পায়নি এমন অর্জনের দেখা। অবশেষে ১২৮ বছরের অপেক্ষার পর আজ বাংলাদেশ ক্রিকেট বিশ্বকে আবারও সম্মুখীন করল এমন বিরল কীর্তি দেখার।