মঙ্গলবার ১৯ নভেম্বর ২০১৯ ৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

৮ নভেম্বর বাংলাদেশে মুক্তি পাচ্ছে ‘কণ্ঠ’

আগামী ৮ নভেম্বর বাংলাদেশে একসঙ্গে ১২টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাবে ‘কণ্ঠ’। এমনটাই জানানো হয়েছে নন্দিতা রায়-শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের তরফ থেকে।

পরিচালকদ্বয়ের পক্ষ থেকে আরও জানানো হয়েছে, সাধারণত চলচ্চিত্র উৎসবের সময় ভারতীয় ছবি বেশি দেখানো হয়। কমার্শিয়ালি রিলিজ হয় খুবই কম। কিন্তু সেখানেও ব্যতিক্রম ‘কণ্ঠ’। ৮ নভেম্বর একসঙ্গে দেখা যাবে বাংলাদেশের স্টার সিনেপ্লেক্স (বসুন্ধরা সিটি, ঢাকা) ব্লকবাস্টার্স সিনেমা (ঢাকা), শ্যামলী সিনেমা (ঢাকা), বলাকা (ঢাকা), মধুমিতা (ঢাকা), বর্ষা (জয়দেবপুর), মম ইন (বগুড়া), সিলভার স্ক্রিন (চট্টগ্রাম), ছায়াবানী (ময়মনসিংহ), রূপকথা (পাবনা), শংখ (খুলনা) এবং লিবার্টি (খুলনা)-তে।

এর আগে এনডিটিভি-কে দেওয়া এক ভিডিও সাক্ষাৎকারে ছবির অন্যতম অভিনেতা জয়া আহসানের কাছে প্রশ্ন রাখা হয়েছিল, তার অভিনীত এই ভারতীয় ছবি কবে মুক্তি পাবে বাংলাদেশে? মৃদু হেসে নায়িকা বলেছিলেন, ‘আমার জন্মভূমিও অপেক্ষা করে রয়েছে কণ্ঠ দেখার জন্য। খুব শিগগিরিই ‘কণ্ঠ’-র দৌলতে এক হবে গঙ্গা-পদ্মা।’

সাধারণত, যেমন ঘরোয়া গল্প বলে উইন্ডোজ প্রোডাকশন ‘কণ্ঠ’ তার থেকে সামান্য আলাদা। ছবির প্রধান চরিত্র আরজে অর্জুন মল্লিকের কণ্ঠই সম্পদ। সেই কণ্ঠে যখন বাসা বাঁধে মারণরোগ ক্যান্সার, বাদ যায় স্বরযন্ত্র—দুনিয়া ওলটপালট হয়ে যায় অর্জুনের। তখনই তার জীবনে দেবদূত হয়ে আসে স্পিচ থেরাপিস্ট ‘রোমিলা’ জয়া। নকল স্বরযন্ত্র দিয়ে আবার গলার স্বরে মোহিত করেন অর্জুন। স্বাভাবিক হয় অর্জুন-পৃথার জীবন। ছবিতে মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করেছেন শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়। পৃথার চরিত্রে পাওলি দাম। এছাড়াও ছিলেন, কনীনিকা বন্দ্যোপাধ্যায়, চিত্রা সেন প্রমুখ।