বুধবার ১৭ অগাস্ট ২০২২ ২রা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

অচিরেই নিষিদ্ধ হবে জামায়াত শিবির -সংস্কৃতিমন্ত্রী

মো. জাকির হোসেন সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি : সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর এমপি বলেছেন, অচিরেই নিষিদ্ধ হবে ‘‘জামায়াত-শিবিরের রাজনীতি। এরা বাংলাদেশের স্বাধীনতা কে কোন দিন মনেপ্রানে গ্রহন করেনি। এতো দিন এই দলটি বাংলাদেশের সকল সুযোগ-সুবিধা ভোগ করে আসলেও বাংলাদেশের অস্তিত্বকে মানেনি। অথচ এরা বাংলাদেশী পরিচয় বহন করার পর বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত গায়নি। আগামী পৌর ও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন দলীয় ভিত্তিত্বে ও দলীয় প্রতীকে অনুষ্ঠিত হবে। আর এতেই জামায়াতের অস্তিত্ব বিলিন হয়ে যাবে। বৃহস্পতিবার (২২ অক্টোবর) দুপুরে নীলফামারী সদর উপজেলা পরিষদ চত্বরে জেলা সদরের বিভিন্ন গ্রামে সম্প্রতি অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থ ৩১টি পরিবারের মাঝে সরকারি অনুদান বিতরনের প্রধান অতিথি বক্তব্য তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘‘আওয়ামী লীগ সরকার সবসময় দেশের মানুষের সুখে-দুঃখে পাশে থাকেন। আমাদের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। আর এ জন্য প্রধানমন্ত্রী দেশ কে ডিজিটাল বাংলাদেশ হিসাবে গড়ে তুলতে কাজ করে যাচ্ছেন। যার স্বীকৃতি স্বরূপ জাতি সংঘের পরিবেশ বিষয়ক সর্বোচ্চ সম্মান চ্যাম্পিয়নস অব দ্য আর্থ এর পুরস্কারে ভহষিত হয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর দেশের উন্নয়ন ধারাকে বাধাগ্রস্থ করতে জামায়াত-বিএনপির ষড়যন্ত্র অব্যাহত রেখেছে। তাদের এই সকল ষড়যন্ত্রকে প্রতিহত করতে সকলকে সজাগ ও প্রতিহত করতে আহবান জানান ।

সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আবুজার রহমানের সভাপতিত্ব এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা আঃ লীগের সাধারন সম্পাদক জেলা পরিষদের প্রশাসক মমতাজুল হক, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাবেত আলী, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আরিফা সুলতানা লাভলী, উপজেলা ত্রান ও পূর্ণবাসন কর্মকর্তা আবু আসাদ মিয়া, জেলা আঃলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হাফিজুর রশিদ মঞ্জু, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মশফিকুল ইসলাম রিন্টু জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহিদ মাহমুদ, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সজল কুমার ভৌমিক প্রমুখ। মন্ত্রী অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থ ৩১ পরিবারের প্রতিটিকে এক বান্ডিল করে ঢেউ টিন ও নগদ ৩ হাজার টাকা করে বিতরন করেন। এর আগে সকালে ফুটঅফিস সড়কের নিজবাসভবনে মন্ত্রী তার ব্যক্তিগত তহবিল থেকে নীলফামারী সদর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন ও পৌরসভায় হতোদরিদ্র ও অসহায় ১৫টি পরিবারকে একটি করে ঘর বিতরণ করেন।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email