বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১৫ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

অবশেষে মান্নাকে হস্তান্তর

নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্নাকে অবশেষে রাত সাড়ে ১২টার দিকে র‌্যাবের একটি প্রতিনিধি দল মান্নাকে গুলশান থানায় হস্তান্তর করে। র‌্যাবের দাবি, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজধানীতে অভিযান চালিয়ে মান্নাকে আটক করেছে তারা। গুলশান থানা থেকে মান্নাকে ডিবি কার্যালয়ে নেওয়া হয়।
তবে ভোর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত মান্না কোথায় ছিলেন বা তাকে ডিবি পরিচয়ে কারা ধরে নিয়ে গিয়েছিল সে বিষয়ে কিছু জানা যায়নি।

রাজধানীর একটি অভিজাত এলাকা থেকে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মান্নাকে আটক করে র‌্যাব। এরপর রাত ১২টা ২৫ মিনিটে র‌্যাবের একটি প্রতিনিধি দল মান্নাকে গুলশান থানায় হস্তান্তর করে।

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান বলেন, ‘র‌্যাব তাকে আটক করে গুলশান থানায় হস্তান্তর করেছে।’

গুলশানা থানা সূত্রে জানা গেছে, সেনাবাহিনীকে উসকানি দেওয়ার অভিযোগে গুলশান থানায় দায়ের করা একটি মামলায় মান্নাকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। এরপর নিরাপত্তাজনিত কারণে তাকে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের কার্যালয়ে নিয়ে আসা হয়েছে।

থানা সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার বিকেলে গুলশান থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সোহেল রানা সেনাবাহিনীতে বিদ্রোহের উসকানি প্রদানের অভিযোগে পেনাল কোডের ১৩১ নম্বর ধারায় একটি মামলা করে মান্নার বিরুদ্ধে। এই মামলায় মান্নার নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও একজনকে আসামী করা হয়। মামলা নম্বর ৩২।

এর আগে মঙ্গলবার ভোরে গোয়েন্দা পুলিশ পরিচয়ে ভাতিজি শাহনামা শারমিনের বনানীর বাসা থেকে মান্নাকে আটক করা হয় বলে দাবি করেন তার স্ত্রী মেহের নিগার। তবে মান্নাকে আটকের বিষয়টি অস্বীকার করেন মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার মো. মনিরুল ইসলাম।

অবশেষে রাত সাড়ে ১২টার দিকে র‌্যাবের একটি প্রতিনিধি দল মান্নাকে গুলশান থানায় হস্তান্তর করে। র‌্যাবের দাবি, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজধানীতে অভিযান চালিয়ে মান্নাকে আটক করেছে তারা। তবে ভোর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত মান্না কোথায় ছিলেন বা তাকে ডিবি পরিচয়ে কারা ধরে নিয়ে গিয়েছিল সে বিষয়ে কিছু জানা যায়নি।

এ বিষয়ে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের মুখপাত্র ও যুগ্ম- কমিশনার মনিরুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন

Spread the love