সোমবার ৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ ২৩শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

অবৈধভাবে বালু উত্তোলন চিরিরবন্দরের কাঁকড়া ব্রিজ হুমকির মুখে

Kakra bridgeমো. রফিকুল ইসলাম, চিরিরবন্দর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: চিরিরবন্দরের কাঁকড়া নদী থেকে বিধি বর্হিভূতভাবে এবং অবাধে বালু উত্তোলন করায় ব্রিজটি বর্তমানে হুমকির মুখে পড়েছে। ব্রিজটিতে যেকোন সময় বড় ধরনের দূর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা প্রকাশ করছেন এলাকাবাসী।

জানা গেছে, উপজেলার দিনাজপুর-পার্বতীপুর সড়কের কারেন্টহাট নামক স্থানে কাঁকড়া নদীতে এ বেইলী ব্রিজটি অবস্থিত। এ ব্রিজ দিয়ে প্রতিনিয়ত শ’ শ’ যানবাহন ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে। এ বেইলী ব্রিজের নিচ থেকে অবৈধভাবে অবাধে বালু উত্তোলন করায় ব্রিজের পিলারের নিচে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এ নদী থেকে প্রত্যেহ ২/৩শ ট্রাক্ট্রর বালু উত্তোলন করে বিভিন্ন বাসা-বাড়ি, ইমারত, সড়ক নির্মাণ কাজে সরবরাহ করছে। ফলে বর্তমানে ব্রিজটি চরম হুমকির মধ্যে পড়েছে। এলাকাবাসীসহ আউলিয়াপুকুর ইউপি চেয়ারম্যান হাছিবুর হাসান হাছিম বাবু ও কারেন্টহাট মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ জালালউদ্দীন মজুমদার, কারেন্টহাট সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এমদাদুল হক জানান, ব্রিজের পিলারের নিকট থেকে বালু উত্তোলনকারীদের বারংবার নিষেধ করলেও তারা কোন তোয়াক্কাই করছেন না। ইজারাদারের অজ্ঞাত ঈশারার কারণে বিধি বর্হিভূতভাবে তারা পিলারের ও নদীর কিনারা থেকে বালু উত্তোলন করে চলেছেন।

সরকারী বিধি মোতাবেক ব্রিজের কিনারার ৭০মিটার দূর থেকে তারা বালু উত্তোলন করতে পারবেন। কিন্তু বালু ইজারাদার আতিকুর রহমান হাজি সরকারী নিয়ম-নীতির কোন তোয়াক্কা না করে অবৈধভাবে অবাধে ব্রিজের নিচের পিলার ও নদীর তীর থেকে বালু উত্তোলন করে চলেছেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা& ও সহকারী কমিশনার (ভূমি)’র নিকট অভিযোগ করেও কোন প্রতিকার পাওয়া যায়নি। নদীর তীর থেকে বালু  উত্তোলন করায় নদীটি প্রতি বছর ভাঙ্গনের কবলে পড়ছে। সেই সাথে হুমকির মুখে পড়েছে কারেন্টহাট মহাবিদ্যালয় মাঠের পূর্ব পার্শ্বের শহীদ মিনারটি। নদী ভাঙ্গনের কারণে ইতিমধ্যেই কয়েক’শ ঘরবাড়ি নদীতে বিলীন হয়ে গেছে। এলাকাবাসী অবিলম্বে ব্রিজের নিচ ও নদীর তীর হতে বালু  উত্তোলন বন্ধ করার জোর দাবী জানান।