রবিবার ২২ মে ২০২২ ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আগামীকাল আফগানিস্তনের মুখেুমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ

এবারের অস্ট্রেলিয়া-নিউজ্যিল্যান্ড বিশ্বকাপ আসরে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে নিজেদের ৫ম বিশ্বকাপ মিশন শুরু করবে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল।

আগামীকাল  বুধবার বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে ৯টায় ক্যানবেরায় এ গ্রুপে নিজেরদের ১ম ম্যাচে আফগানের মুখোমুখি হবে টাইগাররা। তাই জয় দিয়ে বিশ্বকাপের ১১তম আসর শুরু করতে চাইছে মাশরাফি বাহিনী।

এজন্য অনুশীলনে কঠোর পরিশ্রমও করেছে মুশফিক-সাকিবরা। ম্যাচ জয় হয়তো কঠিন হবে, তবে অসম্ভব নয় বলেই মনে করে বাংলাদেশ। আর বর্তমান বাংলাদেশ দলের পক্ষে এ বিশ্বকাপের ২য় রাউন্ডেও খেলা সম্ভব- এমন লক্ষ্য নিয়ে বিশ্বকাপ খেলতে গতমাসেই অস্ট্রেলিয়ার ঘাটি বেধেছে বাংলাদেশ। এরপর সেখানে অনুশীলনে ভালো ঘামও ঝড়িয়েছে টাইগাররা।
তবে অনানুষ্ঠানিক ২টি ও আনুষ্ঠানিক ২টি প্রস্তুতিমূলক ম্যাচ খেলেছে তারা। অস্ট্রেলিয়া একাদশের সাথে দুটি অনানুষ্ঠানিক ম্যাচই হেরেছে। এরপর ২টি আনুষ্ঠানিক ম্যাচেও  হার বরণ করেছে মাশরাফির দল। প্রস্তুতিমূলক হওয়ায় পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচে অনেক কিছুই পেয়েছিলো টাইগাররা। ব্যাটিং বিভাগটা ভালোভাবে ঝালিয়ে নেয়া সম্ভভ হয়েছে। বোলিং বিভাগটা চনমনে ভাব দেখিয়েছে। তাই লড়াইয়ের পর হারটা ছিলো মাত্র ৩ উইকেটে।
এমন আত্মবিশাসী হারকে সাথে নিয়ে ২য় প্রস্তুতিমূলক ম্যাচে আয়ারল্যান্ডের মুখোমুখি বাংলাদেশ। কিন্তু এখানে এসে দেখা গেল সেই আগের বাংলাদেশকে। আইরিশদের কাছে হারলো ৪ উইকেটে। প্রস্তুতি ম্যাচ বলে এ হারকে গায়ে খুব বেশি মাখেনি অনেকেই। তবে মনের মধ্যে অধিনায়ক মাশরাফির সংশয় ঠিকই ছিলো। তিনি বলেন, ম্যাচের ফলাফলের দিকে তাকালে প্রস্তুতিটা একেবারেই জিরো। পাকিস্তানের বিপক্ষে ভালো খেললেও, আইরিশদের সাথে মোটেও ভালো খেলতে পারলাম না। খুবই বাজে খেললাম।
মাশরাফির এমন কথার পর আত্মবিশ্বাস বাড়ানোর কাজটা কতটুকু করতে পেরেছে বাংলাদেশ, তা সময়ই বলে দিবে। তবে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচের আগে নিজেদের ভালোভাবেই ঝালিয়ে নিয়েছে বাংলাদেশ। ম্যাচের ২দিন আগে দীর্ঘক্ষন ব্যাটিং অনুশীলনটা সেড়েছে টাইগাররা। ইনজুরির কারনে বিশ্রামে ছিলেন ওপেনার তামিম ইকবাল। তাই ব্যাটিং অনুশীলনের ১ম পর্বে ছিলেন- মোমিনুল, মুশফিকুর, সৌম্য সরকার ও মাহমুদুল্লাহ। ২য় পর্বে ব্যাট হাতে নেটে গিয়েছেন- সাকিব আল হাসান, নাসির হোসেন, সাব্বির ও মাশরাফি। বোলারদের সাথে ব্যাটিং করেছেন এনামুল হক। ব্যাটসম্যানদের মত বোলাররাও ভালোই হাত ঘুড়িয়েছেন বল হাতে। সে তালিকায় ছিলেন- রুবেল, তাসকিন, তাইজুল, আল-আমিন ও আরাফাত সানি। ইনজুরির জন্য বোলিং করা থেকে বিরত ছিলেন মাশরাফি।
তাই আফগানিস্তানের বিপক্ষে নিজেদেরকে ভালোভাবেই ঝালিয়ে নিয়েছে বাংলাদেশ। এজন্য জয় দিয়ে এবারের বিশ্বকাপ শুরু করতে চাইছেন কোচ চন্ডিকা হাতুরাসিংহে। তিনি বলেন, ১ম ম্যাচে জেতাটা গুরুত্বপূর্ন। ভালো কিছু করার দিকেই সবার দৃষ্টি। জয় দিয়ে বিশ্বকাপ মিশন শুরু করতে চাই। আমার মনে হয় আমরা যদি আমাদের সেরা খেলাটা খেলতে পারি তবে ভালো লড়াই হবে। শুধুমাত্র বিশ্বকাপের শুরুটা দুর্দান্তই করাই কি লক্ষ্য বাংলাদেশের! হয়তো না। এটি প্রতিশোধের ম্যাচও হতে পারে বাংলাদেশের কাছে। কারন আফগানিস্তানের সাথে এখনপর্যন্ত ১টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছে টাইগাররা। তাতে হারের ঢেকুঁরই তুলেছে তারা। ২০১৪ সালে এশিয়া কাপের ম্যাচে নিজ মাঠ ফতুল্লায় আফগানদের কাছে ৩২ রানে হারে মুশফিক-নাসিররা।

বাংলাদেশের বিশ্বকাপ স্কোয়াড
মাশরাফি বিন মর্তুজা (অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান (সহ-অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, এনামুল হক বিজয়, সৌম্য সরকার, মোমিনুল হক, মুশফিকুর রহিম (উইকেটরক্ষক), মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, নাসির হোসেন, সাব্বির রহমান, তাসকিন আহমেদ, আল-আমিন হোসেন, রুবেল হোসেন, আরাফাত সানি, তাইজুল ইসলাম।

আফগানিস্তানের বিশ্বাকাপ স্কোয়াড
মোহাম্মদ নবী (অধিনায়ক), নওরোজ মঙ্গল, আসগর স্তানিকজাই, সামিউল্লাহ সেনওয়ারি, আফসার জাজাই(উইকেটরক্ষক), নজিবুল্লাহ জারদান, নাসির জামাল, মিরবাইস আশরাফ, গুলবাদিন নবী, হামিদ হাসান, শাপুর জারদান, আফতাব আলম, জাবেদ আহমাদি, উসমান গনি।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email