রবিবার ১৪ অগাস্ট ২০২২ ৩০শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আধুনিকতার যুগে মাটির তৈরি জিসিনপত্র বিক্রির কাজ এখনও ধরে রেখেছেন নরেন বাবু

মোঃ লিহাজ উদ্দীন মানিক, বোদা (পঞ্চগড়) প্রতিনিধিঃ তথ্য প্রযুক্তি আর আধুনিকতার যুগে মাটির তৈরী বিভিন্ন জিনিসপত্র তৈরী ও বিক্রির কাজ এখনো ধরে রেখেছেন নরেন বাবু। নরেন বাবুর বাড়ি পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার পাশ^বতী ঠাকুরগাঁও জেলার দেবীপুর ইউনিয়নের মুজাবর্ণি কুমারপুর গ্রাম্।ে নরেন বাবুর বয়স এখন ৬৫ বছর। এ বিষয়ে নরেন বাবুর সাথে কথা বলে জানা যায়, এই কুমারপুর গ্রামের মাটির তৈরী জিনিস পত্র শিল্পের সাথে ১৭টি পরিবার জড়িত ছিল। মাটির তৈরী হাড়ি-পাতিল, কানতাই, ঢুকি, থালা, তাওয়া, ব্যাংক সহ বিভিন্ন জিনিসের প্রচলন ছিল। এখন মাটির তৈরী জিনিস পত্রের প্রচলন কমে গেছে। কালের আবর্তে আধুনিকতার ছোয়ায় এখন আর নরেন বাবু ছাড়া কেউ এ পেশায় নেই। নরেন বাবু জানান, কুমারপাড়ার ১৭টি পরিবার এই মাটির জিনিসপত্র তৈরী করে পঞ্চগড় জেলা এবং ঠাকুরগাঁও জেলায় বিক্রি করত। এক সময় তাদের কদর ছিল বেশ। এখন আর তেমন কদর না থাকায় জীবন জীবিকার তাগিতে অনেকে এখন পেশা বদল করেছে। নরেন বাবু এখন প্রতিদিন একটি ভ্যানগাড়িতে করে মাটি তৈরী হাড়ি পাতিল সহ টাকা পয়সা রাখার ব্যাংক নিয়ে বোদা বাজারের বিক্রি করেন। কোন সময় বোদা বাজার ছাড়াও আশপাশের বাজার গুলোতে বিক্রি করতে যান। বয়স হয়েছে আগের মত তেমন পরিশ্রম করতে পারেন না। তারপরেও প্রতিদিন একটি ভ্যানে করে মাটি তৈরী জিসিন পত্র বিক্রি করা তার একটি নেশা হয়ে গেছে। বিক্রি হোক বা না হোক তার পরেও সে বাড়িতে বসে থাকতে চান না। তার সাথে কথা বলে জানা যায়, সেও আর এই পেশায় থাকতে চান না। এই পেশা বা শিল্পকে ধরে রাখতে চাইলে তার এ কাজে সরকারি অথবা বে-সরকারি পৃষ্টপোষকতার প্রয়োজন। সে যদি একটু সাহায্য সহযোগিতা পায় তাহলে সে শেষ বসসে একটু সুখে শান্তিতে দিন কাটাতে পারবে।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email