মঙ্গলবার ১৬ অগাস্ট ২০২২ ১লা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আবার ক্ষমতায় যাওয়ার নীল নকশা করছে সরকার : এরশাদ

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, আওয়ামী লীগ সরকার আবার ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য নীল নকশা তৈরী করছে। আর এ কারইে তারা স্থানীয় নির্বাচন দলীয় ভাবে করার জন্য আইন পাশ করেছে। যাতে করে তারা পুনরায় ক্ষমতায় যেতে পারে।

তিনি বলেন, এই সরকার দেশের আইনশৃংখলা রক্ষা করতে ব্যর্থ হয়েছে। তাই যদি না হতো তাহলে দুই বিদেশী খুন হতো না। যারা আমাদের রক্ষা করে সেই পুলিশ সদস্যকেই হত্যা করা হচ্ছে। এটা কোট দেশে আমরা বসবাস করছি।

আজ সোমবার স্থানীয় ভাসানী হল মিলনায়তনে জাতীয় পার্টি টাঙ্গাইল জেলা শাখার দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

এরশাদ আরো বলেন, সরকারের নির্বাচন কমিশনের মেরুদন্ড নেই। আমরা এই মেরুদন্ড ছাড়া নির্বাচন কমিশন চাইনা। আমরা চাই নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন যার মেরুদন্ড আছে।

সম্মেলনে প্রধান বক্তা ছিলেন, জাতীয় পাটির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির মহাসচিব জিয়া উদ্দিন আহমেদ বাবলু এমপি। বিশেষ অতিথি ছিলেন পানি সম্পদ মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, প্রেসিডিয়াম সদস্য এস এম ফয়সল চিসতী, মীর আব্দুস সবুর আসুদ।

জাতীয় পাটির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহবায়ক আলহাজ্ব মো. আবুল কাশেমের সভাপতিত্বে সম্মেলনে অন্যানের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জাতীয় পার্টির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রেজাউল ইসলাম ভূইয়া,যুগ্ম মহাসচিব জহিরুল ইসলাম জহির, নুরুল ইসলাম নুরু, জেলা জাতীয় পার্টির সহ সভাপতি শামসুল হক তালুকদার ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট আব্দুস সালাম চাকলাদার। সম্মেলন পরিচালনায় ছিলেন জেলা জাতীয় পার্টির সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য সচিব আলহাজ্ব মুহাম্মদ মোজাম্মেল হক। শেষে সকলের সম্মতিক্রমে আলহাজ আবুল কাশেমকে সভাপতি ও আলহাজ মুহাম্মদ মোজাম্মেল হককে সাধারন সম্পাদক করে নতুন কমিটির ঘোষনা দেন দলের চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ।
জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান বলেন, আওয়ামী লীগ বা বিএনপির কাছে সুবিচার পায়নি। তাই সিদ্ধান্ত নিয়েছি একাই নির্বাচন করব। মানুষ পরিবর্তন চায়। আল্লাহ যদি চায় তাহলে ক্ষমতায় যাওয়াটা অসম্ভবের কিছুই নাই। তিনি বলেন, আমরা ক্ষমতা ছেড়ে দেয়ার পর থেকেই কারো মুল্যবোধ নেই। সবাই মুলবোধ হারিয়ে ফেলেছে। এই সরকার নির্বাচন কমিশনকে ধ্বংস করে দিয়েছে। স্থানীয় সরকার নির্বাচন দলীয় প্রতিকে হলে প্রতি পরিবারের মধ্যে রক্তপাত হবে বলে এরশাদ মন্তব্য করেন। জাতীয় পার্টিকে বিএনপি ধ্বংস করতে চেয়েছিল। এখন বিএনপির অস্তিত্ব ধ্বংসের মুখে। নির্বাচনে নেতৃত্ব দেওয়ার মতো কেউ নেই।
এরশাদ আক্ষেপ করে বলেন, আমি রক্তপাত চাইনি। এ জন্য ক্ষমতা ছেড়েছিলাম। আমাকে বলা হয়েছিল, আপনি ক্ষমতা ছাড়েন। লেবেল প্লেইং ফিল্ড তৈরি করা হবে, কিন্তু সেদিন আমার সঙ্গে বেঈমানি করা হয়েছিল। আমি যাকে শপথ পরিয়েছিলাম সেই বিচারপতিই আমাকে জেলে পাঠিয়েছিল। শুধু তাই নয় আমার স্ত্রী, পাঁচ ও সাত বছরের শিশুরা কি দোষ করেছিল যে তাদেরও জেলে যেতে হলো। তাই এবার আমরা এককভাবে নির্বাচন করব। আর কাউকে আমাদের দরকার নেই। তিনি বলেন, আমাকে স্বৈরাচার বলা হয়। পৃথিবীর কোন স্বৈরাচার ক্ষমতা ছাড়ার পর পাঁচটি আসনে জয়ী হয়েছে। আমি কোনোদিন পরাজিত হইনি। আমি মানুষের কোনো ক্ষতি করি নাই। কাউকে খুন করি নাই। কাউকে বাড়ি ছাড়া করিনি।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email