বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ৯ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

আমি বেঁচে থাকতে দেখতে চাই জাতীয় পার্টি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে

ছাত্র সমাজের ৫০ বছর পূর্তি জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেন, ‘অতোদিন হয়তো বাঁচবো না। তবে আমি বেঁচে থাকতে দেখতে চাই। জাতীয় পার্টি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। জাতীয় পার্টিকে কেউ ভুলবে না।’
রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশনে সোমবার বিকেলে জাতীয় পার্টির সহযোগী সংগঠন জাতীয় ছাত্র সমাজের ৩২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে রওশন এরশাদ বলেন, ‘আল্লাহ একজন মহান নেতাকে বাঁচিয়ে এনেছেন। এজন্য আল্লাহর কাছে শুকরিয়া। তিনি আমাদের একসাথে মিলিত হওয়ার সুযোগ করে দিয়েছেন। ইনশাল্লাহ ছাত্রসমাজের ৫০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতেও আমাদের পার্টির চেয়ারম্যান আমাদের মাঝে থাকবেন।’

রওশন এরশাদের বক্তব্যকালে পুরো সময়টাই অডিটরিয়ামের সব মাইক বন্ধ হয়ে যায়। ফলে ভেতরে সাউন্ডবক্সের মাধ্যমে তার বক্তব্য প্রচার করা হয়। এ অবস্থায় বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত ছাত্ররা হৈ-চৈ শুরু করে। সেই সঙ্গে হর্ষধ্বনি।

বিরোধীদলীয় নেত্রীকে দেখে এভাবে হর্ষধ্বনি দেয়ায় ব্যাপক চটেন জাপার প্রেসিডিয়াম সসদ্য ও ঢাকা-৪ আসনের সাংসদ সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা। তার বক্তব্যের সময় সেই ক্ষোভও ঝাড়েন।

ছাত্রসমাজের উদ্দেশে বাবলা বলেন, ‘তোমরা শিক্ষার্থী। তোমাদের হাতেই আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। আজ তোমরা রওশন এরশাদকে দেখে সিটি বাজাচ্ছো। এমন কাজ যেনো আর কোনো সভা-সেমিনারে না হয়।’

জাতীয় ছাত্র সমাজের সভাপতি সৈয়দ ইফতেখার আহসান হাসানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান মিরুর সঞ্চালনায় আলোচনাসভায় বক্তব্য রাখেন জাতীয় পার্টির মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, প্রেসিডিয়াম সদস্য পানিসম্পদমন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, অ্যাডভোকেট শেখ মো. সিরাজুল ইসলাম, সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, এসএম ফয়শল চিশতী, যুগ্ম-মহাসচিব নুরুল ইসলাম নুরু, জাপার ছাত্র বিষয়ক সমন্বয়কারী শাহ-ই আজম, জাপার ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল হামিদ ভাসানী, যুগ্ম ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক মো. নোমান মিয়া প্রমুখ।
Spread the love