মঙ্গলবার ২৬ অক্টোবর ২০২১ ১০ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

আরপিএমপি’র সাফল্য ও গৌরবময় সেবার ৩য় বর্ষপূর্তি

রংপুর প্রতিনিধি : রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের (আরপিএমপি) তৃতীয় বর্ষপূর্তি আজ। ২০১৮ সালের এই দিনে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা করে আরপিএমপি। সাফল্য ও গৌরবময় সেবার তিন বছরপূর্তি উদযাপনে এবারও করোনার কারণে সীমিত পরিসরে ছিল ঘরোয়া আয়োজন।
বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে আরপিএমপির গোয়েন্দা বিভাগের কার্যালয়ে বর্ষপূর্তির কেককাটা ও তিন বছরের কার্যক্রম, সাফল্য আর অর্জনের তথ্যচিত্র সম্বলিত প্রকাশনা প্রগতির মোড়ক উন্মোচন করা হয়। এরপর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ও মুক্তিযুদ্ধের বেশকিছু দুর্লভ চিত্র ছাড়াও আরপিএমপি গঠনসহ বাংলাদেশ পুলিশসহ বিভিন্ন ঘটনাবলীর তথ্য ও স্থিরচিত্র নিয়ে সাজানো আর্কাইভের উদ্বোধন করা হয়।
অনুষ্ঠানে আলোচনা পর্বে অতিথিদের বক্তৃতায় পুলিশি সেবায় দৃশ্যমান অর্জন, বিশেষ করে ট্রাফিক ব্যবস্থাপনায় আধুনিকায়ন, বিট পুলিশিং, সরকারের ন্যায্যমূল্যের টিসিবি-ওএমএস’র পণ্য সামগ্রী উদ্ধারসহ হাসপাতাল-ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অভিযানসহ চাঞ্চল্যকর বহু হত্যাকা-ের রহস্য উদঘাটনের বিষয়গুলো উঠে আসে অতিথিরা। শুধু তাই নয় মানবিক পুলিশিং কার্যক্রমে জনসাধারণের আস্থা ও বিশ্বাস অর্জনে এগিয়ে যাওয়ায় আরপিএমপির প্রসংশা করেন তারা।
এতে বক্তব্য রাখেন রংপুর সিটি করেপোরশনের মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, রংপুর রেঞ্জ ডিআইজি দেবদাস ভট্টাচার্য্য, রংপুর বিভাগের অতিরিক্ত কমিশনার (সার্বিক) মোঃ জাকির হোসেন, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (রাজস্ব) আবু তাহের মোঃ মাসুদ রানা,   জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মোছাদ্দেক হোসেন বাবলু, জেলা প্রশাসক আসিব আহসান, জেলা পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার সরকার, রংপুর মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডাঃ একেএম নুরুন্নবী লাইজু, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মমতাজ উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রাজু, প্রেসক্লাবের সভাপতি মাহাবুব রহমান, সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম সরকার রফিক  প্রমুখ। সভাপতিত্ব করেন আরপিএমপি কমিশনার মোহাম্মদ আবদুল আলীম মাহমুদ। এসময় অন্যান্য পুলিশ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
অপরাধ দমনে সক্রিয় ভূমিকার পাশাপাশি তদন্ত ও চাঞ্চল্যকর অপহরণ এবং হত্যা মামলার রহস্য দ্রুততার সঙ্গে উদ্ঘাটন সম্ভব হয়েছে উল্লেখ করেন কমিশনার মোহাম্মদ আবদুল আলীম মাহমুদ। আলোচনা অনুষ্ঠান শেষে অতিথিদের সঙ্গে নিয়ে স্বল্পমূল্যে অ্যাম্বুলেন্স সেবা কার্যক্রমের উদ্বোধন করে পুলিশ কর্মকতার্রা।
প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। এর আগে ২০১০ সালের ২৫ জানুয়ারি মন্ত্রী পরিষদের সভায় রংপুর বিভাগ অনুমোদন এবং একই বছর ৯ মার্চ প্রজ্ঞাপন জারির মাধ্যমে রংপুর বিভাগের কার্যক্রম শুরুর পর এখানে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের দাবি উঠে।
এরই ধারাবাহিকতায় ২০১৭ সালের ১০ ডিসেম্বর রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ গঠনের কার্যক্রম শুরু হয়। ওই বছরের ১৯ এপ্রিল তা গেজেট আকারে প্রকাশিত হয়। ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে জাতীয় সংসদে রংপুর মহানগরী পুলিশ বিল-২০১৮ পাস হয়। প্রায় ১০ লাখেরও বেশি জনসংখ্যা নিয়ে ২৪০ বর্গ কিলোমিটার আয়তনের রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ (আরপিএমপি) এর কার্যক্রম কোতয়ালি, পরশুরাম, হাজিরহাট, মাহিগঞ্জ, হারাগাছ এবং তাজহাট এই ৬টি থানা নিয়ে যাত্রা শুরু হয়। বর্তমানে ১ হাজার ১৮৯ জন জনবল নিয়ে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। 

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email