সোমবার ৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ ২৩শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আশুলিয়ায় বকেয়া বেতনের দাবীতে শ্রমিক অসন্তোষ

Saverশিল্পাঞ্চল সাভার-আশুলিয়ায় বকেয়া

বেতন-ভাতার দাবীতে বিক্ষোভ করছে ৪টি

তৈরী পোশাক কারখানার শ্রমিকরা। আজ

শনিবার সকাল থেকেই সাভার পৌর

এলাকার আইচা নোয়াদ্দা এলাকায় অবস্থিত

সাভার টেক্সটাইলের সুরমা গার্মেন্টসের

শ্রমিকরা দুই মাসের বকেয়া বকেয়া বেতন ও

ঈদ বোনাসের দাবীতে কারখানায় প্রবেশের

পর থেকে কর্মবিরতী ও বিক্ষোভ করতে

থাকে। পুলিশ ও শ্রমিক সুত্রে জানা গেছে,

প্রতিমাসের ৮-১০ তারিখের মধ্যে আমাদের

বেতন পরিশোধের কথা থাকলেও ঈদের

আগে মালিক পক্ষ বেতন-ভাতা প্রদান নিয়ে

গড়িমষি শুরু করেছে। মালিক পক্ষের সাথে

একাধিকবার বেতন-ভাতার বিষয়ে

আলোচনা করা হলে তারা জুলাই মাসের ১৫

দিনের বেতন প্রদান করে দুই মাসের

বাধ্যতামূলক ছুটির ঘোষনা দেয়। মালিক

পক্ষের এমন অযৌক্তিক দাবীর মুখে শ্রমিকরা

প্রতিবাদ জানালে মাহফুজ, আলাউদ্দিন ও

লোকমান নামের তিন শ্রমিককে মারধর

করে । একপর্যায়ে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা কারখানা

থেকে বের হয়ে সাভার বিরুলিয়া সড়কে

অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করলে শিল্প

পুলিশের সদস্যরা উত্তেজিত শ্রমিকদেরকে

লাঠিচার্জ কওে ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এঘটনায়

বিক্ষোব্ধ শ্রমিকরা পুলিশের উপর

ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করলে পরিস্থিতি

নিয়ন্ত্রনে পুলিশ টিয়ারশেল ও রাবার বুলেট

নিক্ষেপ করলে কমপক্ষে ২০ শ্রমিক আহত

হয়েছে বলে জানা গেছে।এসময় অপ্রীতিকর

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে কারখানাটি আজকের

জন্য ছুটি ঘোষনা করেছে কর্তৃপক্ষ।

অন্যদিকে একই দাবীতে আশুলিয়ার ঢাকা

রপ্তানী প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চলের (ডিইপিজেড)

পুরাতন জোনের ব্যাক্সটার ব্রেনটন (বিডি)

নামক তৈরি পোশাক কারখানা ও জামগড়া

এলাকার ইয়াগী বাংলাদেশ লিমিটেড

কারখানার শ্রমিকরা কর্মবিরতিসহ

কারখানার সামনে অবস্থান কর্মসূচী পালন

করছে।  এছাড়া আশুলিয়ার জিরানী বাজার

এলাকার শাকচুন নামের একটি তৈরী

পোশাক কারখানায় বকেয়া বেতনের

দাবীতে শ্রমিক বিক্ষোভের জের ধরে শ্রমিক

নির্যাতনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল

করেছে কারখানাটির নির্যাতিত শ্রমিকরা।

এব্যাপারে জানতে চাইলে আশুলিয়া শিল্প

পুলিশ-১ এর পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, সাভার

ও আশুলিয়ায় যে কোন অপ্রীতিকর ঘটনা

কারখানা গুলোতে অতিরিক্ত পুলিশ

মোতায়েন করা হয়েছে।