মঙ্গলবার ১৬ অগাস্ট ২০২২ ১লা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ইনজামাম-উল-হকের বিশেষ অবদানে ইতিহাসের পাতায় আফগানিস্তান

যে দেশে মাঠ বা অবকাঠামো বলতে কিছুই নেই সেদেশের পক্ষে টেস্ট খেলুড়ে কোন দেশের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ জেতার আশা বাড়াবাড়ি নয় কি? না। যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তান বুঝিয়ে দিল এটা মোটেও বাড়াবাড়ি নয়। শনিবার বুলাওয়েতে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের পঞ্চম এবং শেষ ওয়ানডেতে জিম্বাবুয়েকে ৭৩ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে নতুন ইতিহাসের জন্ম দিয়েছে আফগানরা। আইসিসির সহযোগী দেশ হয়ে তারা টেস্ট খেলুড়ে দেশ জিম্বাবুয়েকে ওয়ানডে সিরিজে হারিয়েছে ৩-২ ব্যবধানে। এর মধ্যেদিয়ে যে কোন সিরিজে প্রথম বারের মতো সিরিজ জিতে ইতিহাসের পাতায় নাম লিখিয়েছে তারা। আফগানিস্তানের ছুঁড়ে দেওয়া ২৪৬ রানের লক্ষ্যের পেছনে ছুটতে গিয়ে স্বাগতিকদের থামতে হয়েছে ১৭২ রানে। অবশ্য আফগানিস্তানের জয়ের পেছনে সবচেয়ে বেশি অবদান পাকিস্তানের ক্রিকেট তারকা ইনজামাম-উল-হকের। কারণ তিনি আফগানিস্তানের কোচের দায়িত্ব নেয়ার পরই প্রথম বারের মতো সিরিজ জিতেছে যুদ্ধ বিধ্বস্ত এই দেশ। তাই ক্রিকেটারদের চেয়ে আফগানরা যেন ইনজামামকেই বেশি সম্মানিত করছে। সিরিজ জয়ের পর তাইতো সবাই ইনজামাকে ঘিরে নাচানাচিতে মেতে উঠে। পাশাপাশি গ্যালারিতে ‘ধন্যবাদ ইনজামাম’ ‘সালাম ইনজামাম’ এমন সব লেখায় সমৃদ্ধ প্ল্যাকার্ড হাতে শতশত দর্শকদেরও দেখা যায়। এদিন কুইন্স স্পোর্টস ক্লাব মাঠে ২৪৫ রান তাড়া করতে নেমে শুরু থেকেই ধুঁকতে হয়েছে জিম্বাবুয়েকে। ১৫ রানের মধ্যে চামু চিবাবা (৭), ক্রেইগ আরভিন (১) এবং মুতাবামি (২) ফিরে গেলে চরম বিপর্যয়ে পড়ে স্বাগতিকরা। সেই বিপর্যয় আরও বাড়িয়ে স্কোরবোর্ডে ৫৫ রান উঠতেই ড্রেসিংরুমের পথ ধরেন মুতমবুজি (৬) ও সিকান্দার রাজা (২)। তবে মিডল অর্ডারে একপ্রান্ত আগলে রেখে নিঃসঙ্গ শেরপার মতো জিম্বাবুয়ের ইনিংসকে টেনেছেন শন উইলিয়ামস। ১৭২ রানের মধ্যে ১০২ রানই এসেছে তার ব্যাট থেকে। বাকি ৯ ব্যাটসম্যান মিলে করেছেন মাত্র ৭০ রান! এখান থেকে আসলে বোঝা যায় আফগান বোলারদের সামনে কতটা অসহায় ছিল জিম্বাবুয়ের ব্যাটসম্যানরা। উইলিয়ামসনের ১০২ রান এসেছে ১২৪ বলে তিন চার আর চার ছক্কায়। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান লুক জঙ্গের (১৬)। অধিনায়ক এলটন চিগুম্বুরা করেন ১৪ রান। ২২ রানে ৪ উইকেট নিয়ে জিম্বাবুয়ের আসল সর্বনাশটা করেছেন ফাস্ট বোলার দৌলত জাদরান। ৪১ রানে ৩ উইকেট নিয়েছেন আমির হামজা। ২৪ রানে ২ উইকেট পেয়েছেন তরুণ লেগ স্পিনার রশিদ খান। এরআগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানদের সম্মিলিত অবদানে আফগানিস্তান নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে স্কোরবোর্ডে জমা করে ২৪৫ রান। আলি জাদরান ৮৮ বলে ৫৪, মোহাম্মদ নবী ৭০ বলে ৫৩, অধিনায়ক স্ট্যানিকজাই ৫৮ বলে ৩৮ এবং মোহাম্মদ শাহজাদ করেন ২২ রান। ওয়েলিংটন মাসাকাদজা ৩১ এবং রাজা ৪০ রানে পেয়েছেন ৩টি করে উইকেট। ম্যাচ সেরা হয়েছেন দুজন, আফগানিস্তানের দৌলত জাদরান ও জিম্বাবুয়ের সেঞ্চুরিয়ান শন উইলয়ামস। তবে সিরিজ সেরার পুরস্কার জিতে নিয়েছেন আফগান অধিনায়ক মোহাম্মদ নবী।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email