বুধবার ৪ অগাস্ট ২০২১ ২০শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

কাহারোলে পাল বংশীয়রা আর আগের মত ভালো নেই

সুকুমার রায়, কাহারোল(দিনাজপুর) প্রতিনিধি ॥ গ্রামটির নাম পূর্ব সুলতানপুর। সেই গ্রামে রয়েছে পাল পাড়া নামে একটি পাড়া, ১শত পরিবার বসবাস করে সেই পাড়ায়। দিনাজপুরের কাহারোল উপজেলার ৬ নং রামচন্দ্রপুর ইউনিয়নে এই পালপাড়া। তাদের একমাত্র পেশা মাটির তৈরি হাড়ি পাতিল ও বিভিন্ন খেলনা বিক্রি করে জীবিকা নির্বাহ। একসময় এই পালপাড়ার মাটির তৈরি জিনিস পত্র দিনাজপুর জেলায় খুব সুনামের সহিত ব্যবহৃত হইত, কিন্তু কালের আবর্তে তা এখন থেমে গেছে। বুলবুলি পাল জানান, এই পেশা আমাদের বাপ-দাদার আমল থেকেই করে আসছি। মাটির তৈরি হাড়ি পাতিল ও বিভিন্ন খেলনা তৈরি করে হাট-বাজার ও বিভিন্ন মেলাতে বিক্রি করে যা পাই তা দিয়ে সংসার খুব ভালো ভাবেই চলত, কিন্তু বেশ কয়েক বছর ধরে এই মাটির জিনিস পত্রের বাজার খুব খারাপ যাচ্ছে। কারন জানতে চাইলে তিনি বলেন, এখন সিলভার ও কাস্টিং লোহার হাড়ি পাতিল ও প্লাষ্টিকের বিভিন্ন জিনিস পত্র বাজারে আসার পর থেকে আমাদের আর আগের মত বিক্রি হয় না। তাছাড়া করোনা ভাইরাসের কারণে আমাদের এলাকায় কোন মেলা না হওয়ার কারনে মাটির খেলনা তৈরি ও বিক্রি করতে পারছি না। আমাদের এই পালপাড়ায় প্রায় ১শত পরিবার আছি, সবারই পেশা মাটির হাড়ি পাতিল তৈরি করা। বাজার খারাপ হলেও কি করব বাপ-দাদার পেশা ছাড়তে পারিনা। তাই হাড়ি পাতিল তৈরির ফাকে ফাকে সংসার চালানোর জন্য অন্যের বাড়িতে মজুরী দিয়ে সংসার চালাতে হয়।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email